খালেদা জিয়াকে সাজা দিতে জাল নথি তৈরী করেছেন তদন্ত কর্মকর্তা: আইনজীবী

655c784f3
Share Button

অনলাইন ডেস্ক :: বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার আইনজীবী এ জে মোহাম্মদ আলী বলেছেন, বেগম খালেদা জিয়াকে ফাঁসাতেই জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলা করা হয়েছে।

এই মামলায় জাল নথিপত্র তৈরী করেছে তদন্ত কর্মকর্তা হারুনুর রশীদ। এর স্বপক্ষে হারুনুর রশদিসহ পাঁচজন স্বাক্ষী আদালতে মিথ্যা স্বাক্ষ্য দিয়েছে। দুদকের আইন অনুযায়ী ৪৫ কার্যদিবসের মধ্যে তদন্ত কার্য শেষ করার কথা। এই সময়ের মধ্যে শেষ না হলে আরো ১৫ দিন সময় বধিৃত করার নিয়ম রয়েছে। কিন্তু ৬০ দিনের তদন্ত কাজ শেষ হয়েছে ২৯৫ দিনে।

কেন এর কম করা হয়েছে? জাল নথিপত্র তৈরী করার জন্য এতো সময় নেয়া হয়েছে। বুধবার বকশীবাজারের আলিয়া মাদরাসায় স্থাপিত বিশেষ আদালতে মামলাটির যুক্তিতর্ক উপস্থাপনকালে এসব কথা বলেন তিনি।

এজে মোহাম্মদ আলী বলেন, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের এতিম তহবিলের নথি দেখার কোন ক্ষমতা স্বাক্ষী জগলুল পাশার নেই। তিনি কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী (সাবেক মুখ্য সচিব)’র পিএস ছিলেন।

বেগম খালেদা জিয়ার আইনজীবী বলেন, আইনের বিধান অনুযায়ী যেভাবে নথি তৈরী করার কথা সেভাবে তা করা হয় নি। নথির গতিবিধি সংক্রান্ত বিধানও এখানে অনুসরণ করা হয় নি। জাল নথি তৈরী করে বেগম খালেদা জিয়াকে সাজা দেয়ার জন্য এ কাজ করেছেন তদন্ত কর্মকর্তা।



« (পূর্ববর্তী সংবাদ)



সঙ্গতিপূর্ণ আরো খবর

  • ফোরজি নিয়ে হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত
  • মানবতাবিরোধী অপরাধ : ২ জনের ফাঁসি, ৩ জনের আমৃত্যু কারাদণ্ড
  • অস্ত্রের মুখে ‘তুলে নিয়ে নারীকে বিয়ে’: ডিআইজি মিজানকে প্রত্যাহার
  • শিগগিরই আপিল ও হাইকোর্ট বিভাগে বিচারপতি নিয়োগ : আইনমন্ত্রী
  • খালেদার পরবর্তী যুক্তিতর্ক বুধ ও বৃহস্পতিবার
  • খুলনার ১১ জনের বিরুদ্ধে চূড়ান্ত প্রতিবেদন
  • দুর্নীতির দুই মামলায় খালেদার জামিন