ধর্মীয় সম্প্রতি বিনষ্টের চেষ্টাকারী রাকেশ রায় অবশেষে পুলিশের খাচায়

img-20170608-wa0000
Share Button

.
হাফিজুল ইসলাম লস্কর :: ধর্ম নিরপেক্ষতার দেশ বাংলাদেশের অলিতে গলিতে রয়েছে ধর্মীয় সম্প্রতি ও সকল ধর্মের সহবস্থান। বিশেষ করে শাহজালালের পূর্নভুমি সিলেটে সকল ধর্মের সকল বর্ণের মানুষের মাধ্যে রয়েছে অপুর্ব এক মানব বন্ধন। যা হঠাৎ দেখলে যে কোন মানুষ মনে করবে এরা পরস্পর আত্বীয়।

এইরকম ভাবেই হিন্দু মুসলিম বৌদ্ধ ও খ্রিস্টান মিলেমিশে শান্তিপুর্ন ভাবে একে অন্যের সহমর্মি হয়ে বসবাস করে। যা এক অপুর্ব দৃষ্টান্ত। যে রকম ভাবে আমার এলাকার রিপন চন্দ্র আমাকে যেখানেই দেখে চাচা বলে জড়িয়ে ধরে। ঠিক তেমনি ভাবে একনাগারে একমাস আমি তাকে না দেখলে আমার মন খারাপ হয়ে যায়। তখনি আমি তাকে ফোন দিয়ে তার কোশলাদি জিজ্ঞেস করি। এক কথায় বলা চলে সিলেটবাসী ধর্মবর্ন নির্বিশেষে একে অপরের আত্বার আত্বীয়।

সমাজে কিছু কুচক্রী মানুষ রয়েছে যারা যারা মানুষের ভাল সহ্য করতে পারে না। এরা মহাভারতের শকুনীর মতো। তেমনি এক হিংসুক চরিত্র রাকেশ রায়। সে প্রথমে আব্দুল আজিজ নামক এক নও মুসলিমকে বিভিন্ন ভাবে উত্তক্ত করতে শুরু করে। এমনকি শেষ পর্যন্ত তার ক্ষমতায় আজিজকে মামলার মাধ্যমে জেলে পাঠিয়ে সামাজিক সম্প্রিতি বিনষ্ট করতে চেয়েছিল।

কিন্তু তাতে ব্যার্থ হয়ে সে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নিয়ে কটুক্তি করে। তাতে যখন তার হিংস্র উদ্দেশ্য বাস্থবায়িত হয়নি। শান্তিপ্রিয় সিলেটবাসী তার এসব কর্মকান্ডকে পাগলের প্রলাপ ভেবে ছেড়ে দিয়েছিল। তখনি সে আরো মরিয়া হয়ে সম্প্রিতির বন্ধন বিনষ্টের চরমপন্তা গ্রহন করে।

এবার সে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ট মহামানব বিশ্ব জগতের পথ প্রদর্শক মহানবী হযরত মোহাম্মদ মোস্তফা (সা:)” কে নিয়ে তার ফেসবুক আইডিতে কুরুচিপুর্ন মন্তব্য করে। ফলে পুর্নভুমি সিলেটের জনতা ফুসে উঠে। তারা শান্তিপুর্ন ভাবে মানববন্ধন করে এবং থানায় মামলা দায়ের করে। ফলে ০৭জুন বুধবার অনুমানিক সাড়ে সাতটার দিকে গ্রেফতার এড়াতে ভারত পলায়ন কালে তাকে গ্রেফতার করে জকিগঞ্জ থানা পুলিশ।

০৭ জুন বুধবার ভোরে লালাখাল এলাকা থেকে তাঁকে গ্রেপ্তার করা হয়। জকিগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাবিবুর বিষয়টি জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, সুপ্রিম কোর্টের সামনে স্থাপিত ভাস্কর্য সরানো নিয়ে গত সপ্তাহে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে হত্যার হুমকি দিয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দেন রাকেশ।
রাকেশের স্ট্যাটাসের পর তাঁকে গ্রেপ্তারের দাবিতে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ মিছিল ও পথসভা অনুষ্ঠিত হয়। এরপরেই তিনি আবারও তার ফেসবুক আইডিতে মহানবী (সা:)’কে নিয়ে কুরুচিপুর্ন মন্তব্য করেন।
এলাকায় উগ্র হিসেবে পরিচিত রাকেশ রায় হিন্দু মহাজোটের সিলেট বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বলে জানা গেছে।

এ ঘটনায় গত ০৫ জুন সোমবার ফুযায়েল আহমদ নামের এক ব্যক্তি বাদী হয়ে রাকেশ রায়ের বিরুদ্ধে তথ্যপ্রযুক্তি আইনের ৫৭(২) ধারায় জকিগঞ্জ থানায় একটি মামলা করেন।

এ ব্যাপারে জকিগঞ্জ-বিয়ানীবাজার সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোস্তাক সরকার বলেন, রাকেশ রায় পুলিশের নজরদারিতে ছিলেন। সকাল ৭টা ১৮মিনিটের দিকে অবৈধভাবে ভারত প্রবেশের সময় তাকে লালাখাল নামক স্থান থেকে পুলিশ আটক করেছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জকিগঞ্জ সার্কেল এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মোস্তাক সরকার ও জকিগঞ্জ থানার এসআই সৈয়দ ইমরোজ তারেক।

যে আইডি থেকে প্রধানমন্ত্রীকে হুমকি দেওয়া হয়েছে, এবং মহানবী (সা:)’কে অবমাননার করা হয়েছে। সেই আইডির বিষয়ে খোঁজ নেওয়া হচ্ছে। এ ব্যাপারে তদন্ত চলছে, তদন্ত শেষে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ইতোমধ্যে পুলিশ তাকে নিয়ে জকিগঞ্জের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দিয়েছে।






সঙ্গতিপূর্ণ আরো খবর

  • নকলায় বাল্যবিবাহ মুক্ত যৌতুক ও মাদক বিরোধী সভা অনুষ্ঠিত
  • মান্দা সদর ইউনিয়নের ৪নং ওর্য়াড যুবদলের কমিটি গঠিত
  • গোলাপগঞ্জ মুক্ত দিবস আজ
  • বেনাপোল সীমান্তে দেড় লাখ টাকা ও ১০টি স্বর্ণের বারসহ আটক এক
  • পাইকগাছা জাদুঘরে হদিস মিলছেনা সংরক্ষিত মুক্তিযুদ্ধের সময় ব্যবহৃত জিনিসপত্রের
  • মোটর মেকানিককে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় মামলা দায়ের
  • নকলায় গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি, সূর্যের দেখা নেই
  • পাইকগাছায় আন্তর্জাতিক মানবাধিকার দিবস পালিত