নকলায় বিজয়ের মাসে বেড়ায় জাতীয় পতাকা বিক্রির ধুম

img_20171208_220929_555
Share Button

নকলা শেরপুর, প্রতিনিধি:
বাঙ্গালীর জীবনে স্মৃতিগাথা মহান বিজয়ের মাস ডিসেম্বর, শেরপুর জেলার নকলা উপজেলায় বাংলাদেশের মানচিত্র, বিভিন্ন ধরনের পতাকা ও মহান বিজয় দিবস লেখা বিভিন্ন বন্ধনী বিক্রি ও তৈরীর ধুম পড়ে গেছে।

ফেরিওয়ালা রহুল আমিন ও এসএসসি পরিক্ষার্থী নাসির জানায়, লেখা পড়ার পাশাপাশি পতাকা ও মানচিত্র ফেরি করে যা লাভ হয় তা দিয়ে তারা পড়া লেখার খরচ চালায়। যত দিন পর্যন্ত লেখা পড়া শেষ না হবে বা অন্য কোন সম্মান জনক পেশা খুঁজে না পাবেন ততদিন এ পেশাই ধরে রাখতে চান তারা।

পতাকা সেলাইয়ে ব্যাস্ত সময় কাটাচ্ছেন টেইলার্স কর্মীরাও। নকলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, গোপালগঞ্জের নাসির, রহুল ও ইসমাইল, মাগুরার আছাদ, মানিকগঞ্জের ময়না, নরসিংদির সাত্তারের মত অনেকেই বাংলাদেশের মানচিত্র, বিভিন্ন ধরনের পতাকা ও মহান বিজয় দিবস লেখা বিভিন্ন বন্ধনী বিক্রি করতে তারা নকলায় অবস্থান করছেন।

প্রতিদিন সকাল থেকে রাত পর্যন্ত পায়ে হেটে বিভিন্ন ধরন ও দামের পতাকা ও মানচিত্র বাশের মধ্যে বেধ সাজিয়ে গ্রাম বাজার ঘুরে বিক্রি করেন। বিভিন্ন মাপের পতাকা হাতে বা কয়েক ফুট উচু বাশের উপর থেকে শুরু করে নিজ পর্যন্ত বিভিন্ন সাইজের পতাকায় সাজিয়ে উপজেলার বিভিন্ন স্থানে বিক্রি করেছি,তাদের সাথে কথা বলে জানা গেছে, ওইসব পন্যের দাম ১০ টাকা থেকে ৩০০ টাকা পর্যন্ত। তারা প্রতি মৌসুমে গাজীপুর হতে ৭ থেকে ৮ হাজার টাকার পণ্য কিনে আনেন।

প্রতিদিন ১৫০ থেকে ৩০০ টাকা লাভ থাকে তাদের। বিক্রি শেষে প্রতি মৌসুমে ৪ থেকে ৫ হাজার টাকা করে প্রতি জনের লাভ থাকে। এ লাভের টাকা দিয়েই চলে তাদের পড়া লেখার খরচ।

ফেব্রুয়ারী, মার্চ ও আগস্ট মাসে বিক্রি ভালো হলেও ডিসেম্বরে সবচেয়ে বেশি বিক্রি হয়। এই চার মাসের মত সারা বছর ওইসব বিক্রি হলে অন্যকোন পেশার চিন্তা করতে হতোনা বলেও জানান তারা। সারাবছর সেলাইয়ের কাজ থাকলেও বিশেষ কিছু দিনকে সামনে রেখে পতাকা তৈরিতে ব্যাস্ত থাকতে হয় টেইলার্স কর্মীদের।

এমনটাই জানালেন শফিক, সাত্তার, কালাম, রহুলসহ বেশ কিছু টেইলার্স মালিক। তারা জাতির কাছে কিছুনা চাইলেও এই টুকু আশা করেন যে, অন্তত বাঙালি জাতি হিসেবে সবার ঘরে একটি করে পতাকা ও মানাচিত্র থাকুক। তাতে শিশুরা পতাকা সম্পর্কে জিজ্ঞাসা করে ছোট কালহতেই জাতির প্রতি আন্তরিক হবে এবং দেশ প্রেমিক হয়ে উঠবে,ফেব্রুয়ারী, মার্চ ও আগস্ট মাসের চেয়ে ডিসেম্বরে সবচেয়ে বেশি বিক্রি হয় এমনটাই মনে করছেন সুধীজন।






সঙ্গতিপূর্ণ আরো খবর

  • নকলায় উপজেলা মাসিক সভা অনুষ্ঠিত
  • নকলায় ১৬ই ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস-২০১৭ উপলক্ষে আওয়ামী লীগের আলোচনা সভা
  • শেরপুরের নকলায় সাজাঁপ্রাপ্ত ‘স্বামী-স্ত্রী’ গ্রেফতার
  • নকলায় ইউপি জনপ্রতিনিধিদের প্রশাসন অবহিতকরণ কোর্স উদ্বোধন
  • শেরপুরে নকলায় ব্যাটারী অটো গাড়ি সহ ২জন চোর আটক করেছে পুলিশ
  • শেরপুরে নকলায় ভিক্ষার কয়েন নিয়ে বিপাকে ভিক্ষুকরা
  • শেরপুরে নকলায় পবিত্র ঈদ-ই-মিলাদুন্নবী দিবস পালিত