শিগগিরই আপিল ও হাইকোর্ট বিভাগে বিচারপতি নিয়োগ : আইনমন্ত্রী

anis
Share Button

অনলাইন ডেস্ক :: চলতি অথবা আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহে আপিল ও হাইকোর্ট বিভাগে নতুন বিচারপতি নিয়োগ হতে পারে বলে জানিয়েছেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

মঙ্গলবার রাজধানীর বিচার প্রশাসন ও প্রশিক্ষণ ইন্সিটিটিউটে (জাতি) যুগ্ম জেলা জজদের নিয়ে আয়োজিত এক কর্মশালার উদ্বোধন শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে এ কথা জানান আইনমন্ত্রী।

আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেন, ‘আমি মনেকরি আপিল বিভাগের কাজের জন্য এই বিভাগকে শক্তিশালী করা প্রয়োজন। এজন্য বিচারপতি নিয়োগের মাধ্যমে এ বিভাগকে শক্তিশালী করার চেষ্টা করবো।’

দশম জুডিশিয়ারি পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের বিষয়ে এখনও গেজেট না হওয়ার কারণ জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘গেজেট না হওয়ার বিষয়টি আজকেই জানলাম। আশাকরি এই মাসের মধ্যেই গেজেট হবে।’

এর আগে গত রবিবার (৩১ ডিসেম্বর,২০১৭) প্রধান বিচারপতির পদ থেকে সুরেন্দ্র কুমার সিনহাকে পদত্যাগে বাধ্য করা হয়নি দাবী করে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছিলেন, বিএনপিকে আমরা চ্যালেঞ্জ করছি তারা প্রমাণ করুক আমরা প্রধান বিচারপতিকে পদত্যাগে বাধ্য করেছি।

তিনি বলেন, দুর্নীতির কারণেই তিনি (সিনহা) পদত্যাগ করেছেন। তার বিরুদ্ধে ১১টি অভিযোগ রয়েছে।

গত রবিবার ( ৩১ ডিসেম্বর,২০১৭) দুপুরে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার তালতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে আয়োজিত এক বিদ্যুৎ সংযোগ প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

কসবা পৌরসভার মেয়র এমরান উদ্দিন জুয়েলের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন- কসবা উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম আহ্বায়ক এম জি হাক্কানী, কাজী আজহারুল ইসলাম ও আইনমন্ত্রীর ব্যক্তিগত সহকারী রাশেদুল কায়সার প্রমুখ।

নির্বাচন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, বিএনপি নির্বাচনকে কেন্দ্র করে গণ্ডগোল সৃষ্টির চেষ্টা করছে। যদি তারা গণ্ডগোল করে তাহলে শুধু ভোটের মাধ্যমেই নয়, আইনের মাধ্যমেও জবাব দেয়া হবে।

খালেদার দুর্নীতির খবর সারা বিশ্ব ছড়িয়ে পড়েছে বলে মন্তব্য করেছিলেন আইন বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক।

তিনি বলেছিলেন, জনগণের কাছে জবাব দিতে প্রস্তত থাকুন। আপনাদের দুর্নীতির খবর আজ সারা বিশ্ব ছড়িয়ে পড়েছে।

শুক্রবার বিকেলে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়া স্থল বন্দরে ৩৬৫ দিন সোনালী ব্যাংক বুথ সেবা কার্যক্রম উদ্বোধনের পর প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেছিলেন। নতুন এই নিয়মে এখন থেকে সাপ্তাহিক ও সরকারি ছুটির দিনেও স্থলবন্দরের ব্যাংকের বুথ খোলা থাকবে।

জেলা প্রশাসক রেজওয়ানুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের সদস্য এ. এফ.এম শাহরিয়ার মোল্লা, কুমিল্লার কাস্টম, এক্সাইজ এন্ড ভ্যাট কমিশনার মো. মাহবুবুজ্জামান, জেলা পুলিশ সুপার মো. মিজানুর রহমান, সরাইল ২৫ বিজিবি অধিনায়ক লে: কর্ণেল শাহ আলী, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সোনালী ব্যাংক লিমিটেড এর ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার মো. মুখলেছুর রহমান, আখাউড়া উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. মোহাম্মদ শামছুজ্জামান, আখাউড়া পৌরসভা মেয়র তাকজিল খলিফা কাজল প্রমুখ।

মন্ত্রী আরও বলেন, উকিল নোটিশ হচ্ছে আইনি প্রক্রিয়া। আইনের মাধ্যমেই খালেদার জিয়ার উকিল নোটিশের সঠিক জবাব দেয়া হবে। আমরা তাদের মতো রাস্তাঘাটে এটা করেছি, ওটা করেছি বলব না। সময় হলে সঠিক জবাব দেয়া হবে।

আখাউড়া স্থলবন্দরের রাজস্ব কর্মকর্তা শ্যামল কুমার বিশ্বাস বলেন, নতুন নিয়ে ব্যাংক বুথ চালুর সুফল ভোগ করতে পারবেন যাত্রীরা। এর মধ্য দিয়ে ভ্রমণ কর জমা দেয়া নিয়ে জটিলতার অবসান হতে চলেছে। এখন থেকে সাপ্তাহিক ও সরকারি ছুটির দিনেও স্থলবন্দরের ব্যাংকের বুথ খোলা থাকবে।






সঙ্গতিপূর্ণ আরো খবর

  • ফোরজি নিয়ে হাইকোর্টের আদেশ স্থগিত
  • মানবতাবিরোধী অপরাধ : ২ জনের ফাঁসি, ৩ জনের আমৃত্যু কারাদণ্ড
  • অস্ত্রের মুখে ‘তুলে নিয়ে নারীকে বিয়ে’: ডিআইজি মিজানকে প্রত্যাহার
  • খালেদার পরবর্তী যুক্তিতর্ক বুধ ও বৃহস্পতিবার
  • খালেদা জিয়াকে সাজা দিতে জাল নথি তৈরী করেছেন তদন্ত কর্মকর্তা: আইনজীবী
  • খুলনার ১১ জনের বিরুদ্ধে চূড়ান্ত প্রতিবেদন
  • দুর্নীতির দুই মামলায় খালেদার জামিন