প্লে স্টোর থেকে কেনো ৭ লাখ অ্যাপ অপসারণ করেছে গুগল?

Share Button

তথ্য প্রযুক্তি: প্লে স্টোর থেকে ২০১৭ সালে সাত লাখের বেশি ক্ষতিকর অ্যাপ অপসারণ করেছে গুগল। গতকাল এক ব্লগ পোস্টে গুগল এ তথ্য জানিয়েছে। গুগল জানায়, ২০১৬ সালের তুলনায় ৭০ শতাংশ বেশি অ্যাপ অপসারণ করা হয়েছে গত বছর।

গত বছরের এপ্রিলে প্লে স্টোরে ম্যালওয়্যারযুক্ত একটি ফ্ল্যাশলাইট অ্যাপ খুঁজে পায় সাইবার নিরাপত্তা কোম্পানি ইসেট। এই অ্যাপটি ব্যবহারকারীর আর্থিক লেনদেনের তথ্যসহ বিভিন্ন ব্যক্তিগত তথ্য চুরি করতে সক্ষম ছিল। এছাড়া জনপ্রিয় গেম সলিটেয়ারসহ বেশ কিছু অ্যাপে একই ধরনের ম্যালওয়্যারের খোঁজ পায় অ্যাভাস্ট।

সেপ্টেম্বরে এমনই ৫০টি অ্যাপ অপসারণ করে গুগল। তবে এর আগেই অ্যাপগুলো ডাউনলোড হয়েছে কয়েক কোটিবার। তবে গুগল জানিয়েছে, যেসব অ্যাপ অপসারণ করা হয়েছে, তার ৯৯ ভাগই কেউ ইনস্টল করার আগে অপসারণ করা হয়েছে।

অপসারণ করা অ্যাপগুলো মধ্যে প্রায় আড়াই লখের বেশি ছিল নকল অ্যাপ। জনপ্রিয় অ্যাপগুলোকে নকল করে এসব অ্যাপ তৈরি করা হয়েছিল। জনপ্রিয় মেসেজিং অ্যাপ হোয়াটসঅ্যাপের একটি নকল অ্যাপ ডাউনলোড করা হয়েছিল প্রায় ১০ লাখবার। নভেম্বরে এটি অপসারণ করা হয়।

গুগল প্লে’র প্রোডাক্ট ম্যানেজার অ্যান্ড্রু আন প্রকাশিত ব্লগ পোস্টে জানান, অযাচিত কন্টেন্ট এবং ম্যালওয়্যার রয়েছে এমন অ্যাপ শনাক্ত করার ক্ষেত্রে বিশেষ অ্যালগরিদমের উপর নির্ভর করেছিল গুগল। এর মাধ্যমে বেশ সফলভাবেই কপি করা অ্যাপসহ ক্ষতিকর অ্যাপ শনাক্ত করা সম্ভব হয়েছে। এই অ্যালগরিদম আগের থেকে আরও ভালোভাবে কাজ করছে বলেও জানান তিনি।

ক্ষতিকর অ্যাপের বাইরে গত বছর এক লাখ অ্যাপ ডেভেলপারকেও অপসারণ করেছে গুগল। মূলত এ ধরনের অ্যাপ তৈরির সাথে যারা জড়িত ছিলেন তাদেরই অপসারণ করা হয়েছে।






সঙ্গতিপূর্ণ আরো খবর

  • ডাটা ট্রান্সফারে লাগবে না পেনড্রাইভ
  • স্কাইপে নিরাপত্তা ত্রুটি, ঝুঁকিতে ব্যবহারকারীরা
  • আকর্ষণীয় ডিজাইনে ওয়ালটনের নতুন ফোরজি স্মার্টফোন
  • সহজ গুগল ম্যাপ
  • আজ থেকে রাইড শেয়ারিং বন্ধ
  • বাংলাদেশে সকল আসুস ল্যাপটপে থাকবে উইন্ডোজ ১০
  • ১৫২ বছর পর আজ দেখা যাবে সুপার মুন ও ব্লু-মুন