রক্ত আমাশয় নিরাময়ে কুচিলা

Share Button

স্বাস্থ্য ডেস্ক :: কুচিলার রয়েছে অনেক ওষুধী গুণ। ড. তপন কুমার দে তার ‘বাংলাদেশ প্রয়োজনীয় গাছ-গাছড়া’ বইয়ে এর ওষুধী গুণগুলো তুলে ধরেছেন। তা দেওয়া হলো-

১) কুচিলার কাষ্ঠ রক্ত আমাশয়ের জ্বরে ও অজীর্ণে ব্যবহার।

২) এর বীজ এক প্রকার মাদকদ্রব্য।

৩) এর শাঁস জ্বর বিনাশক, রক্তদোষ নাশক ও হজমশক্তি বৃদ্ধিকারক।

৪) এর বীজ অজীর্ণ নাশক ও স্নায়ুবিক রোগনাশক।

৫) কুচিলার বীজ পক্ষাঘাত, উদরাময় ও রক্ত আমাশয়ের পক্ষে হিতকর।

৬) এর ছালের টাটকা রস কলেরা নিরাময়ে ব্যবহৃত হয়।

৭) এর পাতার পুলটিন দিলে ঘা ও ক্ষত আরাম হয়।

৮) কুচিলা অল্পমাত্রায় সেবন করলে অন্ত্র ও পিত্তকোষ হতে রস নির্গত হয়ে পরিপাক শক্তি বাড়িয়ে দেয়।

৯) কুচিলা মূলের ত্বকের সঙ্গে পাতিলেবুর রস মিশ্রিত করে বটিকা প্রস্তুত করে সেবন করলে বিসূচিকা (কলেরা) নষ্ট করে।

পরিচিতি : কুচিলা বহু শাখা-প্রশাখা বিশিষ্ট বড় গাছ। কুচিলা ৪০-৬০ ফুট উঁচু হয়। ছাল পাতলা, গাড় ধূসরবর্ণ ও মসৃণ। ফুল সবুজের আভাযুক্ত শ্বেতবর্ণ। এর ফুল হতে বেশ সুগন্ধি বের হয়। ফল গোলাকার, মসৃণ, আপেলের মত। ফলের খোসা শক্ত। বীজের ব্যাস ১.২০ সে.মি., গোলাকার, উজ্জ্বল শ্বেতবর্ণ ও পশমময়।



« (পূর্ববর্তী সংবাদ)