খুনি, সন্ত্রাসী পুত্র এবার ভেঙ্গে দিল মায়ের টিউবওয়েল, গোয়াল ও রান্না ঘর

Share Button

সাতক্ষীরা নিউজ ডেস্ক ::
সন্ত্রাসী পুত্রের বিরুদ্ধে পুলিশে অভিযোগ করার কারনে মায়ের টিউবওয়েল,গ্যাসের চূলা,গোয়ালঘর ও রান্না ঘর ভাঙ্গচুর করেছে খুনি সন্ত্রাসী পুত্র হায়দার আলী। ঘটনাটি ঘটেছে গত বুধবার সাতক্ষীরা সদরের বল্লী ইউনিয়নের ঘরচালা গ্রামে।

ঘরচালা গ্রামের মৃতঃ শামছুর মোল্ল্যার স্ত্রী খালেদা খাতুন এক অভিযোগে জানান, আমার মেঝ পুত্র হায়দার আলী ৩ মাস আগে বিদেশ থেকে বাড়ি আসে। আমার স্বামীর দেওয়া আমার, দুই মেয়ের এবং এক প্রতিবন্ধি ছেলের নামে রেজিষ্ট্রি করে দেওয়া জমি হায়দার আলী তার নামে নতুন করে রেজিষ্ট্রি করে দেওয়ার জন্য চাপ প্রয়োগ করতে থাকে। তার এ অন্যায় দাবী না মেনে নেওয়ার কারনে ২ মাস আগে আমার উপর হামলা করে। আমাকে পিটিয়ে মারতœক ভাবে আহত করে। ঐ সময় আমার বড় মেয়ে আমাকে নিয়ে ঢাকার পিজি হাসপাতালে ভর্র্তি করায়।দীর্ঘ দিন চিকিৎসা নিয়ে সুস্থ্য হয়ে গত ২ সপ্তাহ আগে বাড়িতে আসি।

বাড়িতে আসার পর সে আবারও আমার উপর চড়াও হয়। অকথ্য ভাষায় আমাকে গালিগালাজ করে। আমার প্রতিবন্ধি ছেলের বউকে মেরে পা ভেঙ্গে দেয়। প্রায় প্রতি দিনই তার কাছে থাকা একটি চাইনিজ কড়াল নিয়ে আমাকে হত্যা করতে আসে। ঘরে থাকা জমি জমার দলিল ও কাগজ পত্র একটি বস্তায় ভরে নিয়ে যায়। ইতিপূর্বে জমির কাগজপত্র দেখিয়ে বি আর ডি বি সমিতি থেকে মোটা অংকের লোন নেয়। দীর্ঘ অতিবাহিত হওয়ার পরও লোনের টাকা পরিশোধ করেনি। এখন ঐ টাকা আমাকে পরিশোধ করার জন্য চাপ প্রয়োগ করছে। বিষয়টি আমি স্থানীয় গন্যমান্য ব্যাক্তি,ইউপি মেম্বার ও চেয়ারম্যানকে জানাই।

কিছু দিন আগে চেয়ারম্যান মেম্¦ার ও স্থানীয় গন্যমান্য ব্যাক্তিবর্গ বিষয়টি নিয়ে একটি শালিসি বৈঠক বসান আমার বাড়িতে। ঐ বৈঠকে সবার সামনে আমার বড় ছেলেকে মারপিট করে রক্তাক্ত জখম করে। সে দিন কোন মিমাংশা না করেই শালিশ শেষ হয়। এ ঘটনার পর থেকে হায়দার আলী আরো বেশী ক্ষিপ্ত উঠে।

কোন উপায় না পেয়ে ফরিদা বেগম জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে গত ৩১ ডিসেম্বর সাতক্ষীরা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মেরিনা আক্তারের নিকট অভিযোগ দায়ের করেন। অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মেরিনা আক্তার বিস্তারিত শুনে সদর থানার এস আই মমিনুলকে তদন্ত করার জন্য দায়িত্ব দেন।

এস আই মুমিনুল ৩১ ডিসেম্বর বিকালে থানার এ এস আই আবু বক্কর ও দু জন কনেষ্টবলকে সঙ্গে নিয়ে ঘরচালা গ্রামে আসেন তদন্ত করার জন্যে। এস আই মমিনুল ঘটনার সত্যতা জানতে পেরে তাকে গ্রেফতার করার জন্য তার বাড়িতে যান। ঐ সময় হায়দার পালিয়ে যায়। পুলিশ হায়দারকে না পেয়ে থানায় ফিরে আসেন।

পুলিশ গ্রাম থেকে চলে যাওয়ার পর পরই হায়দার আলী ও তার স্ত্রী খালেদা খাতুনের রান্ন ঘরের গ্যাসের চূলা,সিলিন্ডিার,হাড়িপাতিলসহ আসবাবপত্র,গোয়ালঘর এবং টিউবওয়েল ভাঙ্গচুর করে। এবং তার মাকে চাইনিজ কুড়াল নিয়ে ধাওয়া করে খুন কারর উদ্দেশ্যে। এ সময় তার মা খালেদা খাতুন প্রাণ ভয়ে পালিয়ে পাড়ার অন্য একটি বাড়িতে আশ্রয় নেন। খালেদা খাতুন আরো জানান, যে কোন সময় হায়দার আলী আমাকে ও আমার প্রতিবন্ধি ছেলে ও দুই মেয়েকে হত্যা করবে।

হায়দার আলী একজন খুনি,সন্ত্রাসী। তার নামে থানায় একাধিক মামলা রয়েছে। তিনি আরো জানান ১৯৯৬ সালে জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে আপন চাচাতো ভাই শিক্ষক আজিবার রহমানকে প্রকাশ্য দিনের বেলায় শত শত মানুষের সামনে পিটিয়ে হত্যা করে। সে মামলায় বেশ কয়েক বছর জেল খাটার পর হাই কোর্ট থেকে জামিন নিয়ে বেরিয়ে আসে। জেল থেকে থেকে বেরিয়ে এসে তার পিতার উপর চাপ দিতে থাকে তার নামে জমি লিখে দেওয়ার জন্যে। তার পিতা এতে রাজি না হলে সে ইটের আঘাতে পিতার একটি চোখ নষ্ট করে দেয়।

দেশে থাকা অবস্থায় তিনটি বিয়ে করে। নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে তার মেঝ বউ ও ছোট বউ তার নামে নারী নির্যাতনের মামলা করে। মেঝ বউয়ের মামলায় ১২ বছর ও ছোট বউয়ের মামলায় ৮ বছর ধরে সে ওয়ারেন্ট ভুক্ত আসামী।তার মেঝ বউয়ের দুই ছেলে ও ছোট বউয়ের একটি মেয়ে আছে ।

হায়দায় আলীর হাত থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য তার মা পালিয়ে বেড়াচ্ছেন। এ ব্যাপারে এস আই মমিনুলের কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান হায়দার একজন খুনি,সন্ত্রাসী তাকে আজ হোক কাল গ্রেফতার করা হবে। কিন্ত ঘটনাটি ২/৩ দিন অতিবাহিত হলেও পুলিশী কোন তৎপরতা লক্ষ্য করা যাচ্ছে না। হায়দার আলীকে অনতিবিলম্বে গ্রেফতার করে আইনের আওয়াতায় আনা না হলে আবারো খুনের ঘটনা ঘটতে পারে।

হায়দার আলীকে গ্রেফতার করে আইনের আওয়াতাই আনার জন্য পুলিশের উর্দ্ধতন কতৃপক্ষের নিকট খালেদা খাতুন আবেদন জানিয়েছেন।






সঙ্গতিপূর্ণ আরো খবর

  • টানা ৫ দিন ভোমরা স্থল বন্দরের আমদানী-রপ্তানী বন্ধ
  • সাতক্ষীরা জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদ ইউনিট কমান্ডের উদ্যোগে দোয়া ও ইফতার মাহফিল
  • সাতক্ষীরার বাইপাস সড়কের ভূমি অধিগ্রহনের এল এ চেক বিতরণ
  • বল্লীতে বঙ্গবন্ধু পেশাজীবি পরিষদের ইফতার মাহফিল
  • ‘স্বপ্নের বাংলাদেশ ফাউন্ডেশন’ এর উদ্দ‌োগে ইফতার সামগ্রী বিতরন
  • দারিদ্র বিমোচনে যাকাতের ভূমিকা শীর্ষক আলোচনা ও যাকাত সামগ্রী বিতরণ
  • পৌরসভার ০৮ ওয়ার্ডে আরসিসি রাস্তা ঢালাই ও ড্রেণ নির্মাণ কাজের উদ্বোধন
  • শেষ মুহুর্তে সাতক্ষীরার টুপি, আতর আর জায়নামাজের দোকানে উপছে পড়া ভিড়