১২৮ কোটি টাকা পরিশোধ করতেই হবে সিটিসেলকে

Share Button

অনলাইন ডেস্ক :: গ্রাহকশূন্য মোবাইল ফোন অপারেটর সিটিসেলকে বিটিআরসির প্রাপ্ত বকেয়া ১২৮ কোটি টাকা পরিশোধের নির্দেশ দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। একই সঙ্গে সিটিসেলের পক্ষে করা মানহানি মামলার আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন আদালত।

আজ সোমবার এ সংক্রান্ত আবেদনের ওপর শুনানি শেষে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বে চার সদস্যের আপিল বিভাগের বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

বিটিআরসি সূত্রে জানা গেছে, ২০১৫-১৬ ও ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে সিটিসেলের বকেয়া এবং লাইসেন্স নবায়নের স্পেকট্রাম ফির দুই কিস্তির টাকা বাকিসহ সব মিলে অপারেটরটির বকেয়া হয় ৩৭২ কোটি ৭২ লাখ ৯৩ হাজার ৭৬৭ টাকা।

এর মধ্যে অপারেটরটি ‍তিন দফায় ২৪৪ কোটি ৬৫ লাখ ৯৫ হাজার ৪৪৪ টাকা পরিশোধ করেছে। ফলে এখনও অবশিষ্ট রয়েছে ১২৮ কোটি ৬ লাখ ৯৮ হাজার ৩২৩ টাকা।

আদালতে সিটিসেলের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন মাহমুদ ও অ্যাডভোকেট আহসানুল করিম। বিটিআরসির পক্ষে ছিলেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম, কামরুল হক সিদ্দিকী, ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপস ও খন্দকার রেজা-ই রাকিব।

খন্দকার রেজা-ই রাকিব পরে বলেন, আদালতের নির্দেশের পর সিটিসেলকে বিটিআরসির পাওনা ১২৮ কোটি টাকা পরিশোধ করতে হবে।

১৯৮৯ সালে বিটিআরসির লাইসেন্স পায় প্যাসিফিক বাংলাদেশ টেলিকম লিমিটেড, যা সিটিসেল নামে পরিচিত। এটিই বাংলাদেশের প্রথম ও একমাত্র সিডিএমএ মোবাইল ফোন অপারেটর।






সঙ্গতিপূর্ণ আরো খবর

  • প্রস্তাবিত বাজেটের লক্ষ্যমাত্রা অর্জিত হবে : অর্থমন্ত্রী
  • এবারের বাজেটে নতুন কর নেই: অর্থমন্ত্রী
  • ১৪ জুনের মধ্যে শ্রমিকদের বেতন-ভাতা : বাণিজ্যমন্ত্রী
  • ডিএসইর সঙ্গে চীনের চুক্তি স্বাক্ষরিত
  • চাহিদার তুলনায় কয়েকগুণ পণ্য মজুত রয়েছে : বাণিজ্যমন্ত্রী
  • আগামী ৭ জুন বাজেট পেশ করা হবে : অর্থমন্ত্রী
  • শেষ হলো পপুলার লাইফের কক্সবাজার আনন্দ ভ্রমন
  • বাংলাদেশের প্রবৃদ্ধি আশাব্যঞ্জক: আইএমএফ