গরমে সতেজ থাকতে তরমুজ

Share Button

স্বাস্থ্য ডেস্ক :: গ্রীষ্মকালের ফল তরমুজ। বাজারে আসতে শুরু করেছে মৌসুমের তরমুজ। দারুণ স্বাদের রসালো এই ফলটি পুষ্টিতে ভরপুর। পুষ্টিবিজ্ঞানীরা জানিয়েছেন, তরমুজ গরমে পানির চাহিদা মেটানোর জন্য উপযোগী। এতে থাকা নানান পুষ্টি ও খনিজ উপাদান মানবদেহ সতেজ রাখতে সাহায্য করে।

আজ জেনে নিন তরমুজের পুষ্টিগুণ সম্পর্কে:

*তরমুজে উপস্থিত অন্যান্য পুষ্টি উপাদানের পশাপাশি বিটা ক্যারটিন, ভিটামিন বি-১ এবং বি-২ পাওয়া যায়। যা গরমে শরীর সুস্থ রাখতে সাহায্য করে।

*প্রতি ১০০ গ্রাম তরমুজে ৯০ থেকে ৯৫ ভাগই জলীয় অংশ। এছাড়াও প্রতি ১০০ গ্রাম তরমুজ থেকে ১৬ কিলোক্যালরি খাদ্য শক্তি ও ০.২ গ্রাম ফ্যাট পাওয়া যায়।

*তরমুজ আয়রনের ভালো উৎস। ১০০ গ্রাম তরমুজে ৭.৯ মি.গ্রা আয়রন থাকে। এছাড়া ৩.৩ গ্রাম কার্বোহাইড্রেট, ০.২ গ্রাম প্রোটিন ও ১.১ মি.গ্রা ক্যালসিয়াম পাওয়া যায়। এছাড়াও ১ মি.গ্রা ভিটামিন সি, ০.০২ মি.গ্রা বি-১, ০.০৪ মি.গ্রা বি-২ এবং ০.৩ মি.গ্রা অন্যান্য খনিজ উপাদান থাকে।

*তরমুজের রং লাল হওয়ার কারণ এতে আছে লাইকোপেন নামক উপাদান। এটি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট যুক্ত। তরমুজ ক্যান্সারের ঝুঁকি কমায়। এতে রয়েছে ভিটামিন সি ও বিটা-ক্যারোটিন যা হৃদরোগ, এক্সিমা ইত্যাদি রোগের প্রতিষেধক হিসেবে ব্যবহৃত হয়। বিটা ক্যারোটিন দৃষ্টি শক্তি ভালো রাখতে ও ছানি পড়া সমস্যা প্রতিহত করে।

*তরমুজে ফ্যাট বা চর্বি নেই বললেই চলে। তাই এটা খেলে উচ্চ রক্তচাপ, হৃদরোগ ও কোলেস্ট্রলের মাত্রা বৃদ্ধির ঝুঁকি কম থাকে।

কিভাবে খাবেন?

গরমে জুস করে অথবা কেটে তরমুজ খাওয়া যায়, দুটোই স্বাস্থ্যের জন্য ভালো। জলীয় অংশ ও ভিটামিন থাকায় এটা শরীর ও ত্বক সুন্দর রাখতে সাহায্য করে। তাছাড়া ত্বকের যত্ন নিতে নানান রূপচর্চায়ও তরমুজ ব্যবহার করা যায়।

বর্তমানে তরমুজে নানা রকমের রাসায়নিক উপাদান ব্যবহার করা হচ্ছে যা স্বাস্থ্যের জন্য ক্ষতিকারক। তাই তরমুজ কেনার সময় সচেতন থাকা প্রয়োজন।