প্রয়োজনে মানুষের পাশে দাঁড়াবে সেনাবাহিনী : প্রধানমন্ত্রী

Share Button

সরকার পরিচালনায় প্রয়োজনে সেনাবাহিনী জনগণের পাশে দাঁড়াবে বলে মন্তব্য করেছেন প্রধানমন্ত্রী।

রোববার সকালে ঢাকা সেনানিবাসে বিভিন্ন প্রকল্পের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এ মন্তব্য করেন। এদিন বিভিন্ন সেনানিবাসের ২৭ টি প্রকল্পের উদ্বোধন করেন শেখ হাসিনা।

সেনাবাহিনীর সঙ্গে পারিবারিক সম্পর্ক রয়েছে বলে মন্তব্য করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সেনাবাহিনীর সঙ্গে আমার পারিবারিক সম্পর্ক রয়েছে। আমার দুই ভাই সেনাবাহিনীতে চাকরি করতেন।

‘আমার ১০ বছরের ছোট ভাই, বড় হয়ে সে কী করতে চায়-এ প্রশ্নের জবাবে বলতো, সেনাবাহিনীতে চাকরি করবে,’ বলে শেখ হাসিনা।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, সেনা সদস্যদের জন্য কল্যাণমুখী পদক্ষেপ নিয়েছি। রসদ বাড়ানোর পাশাপাশি ভাতা বাড়িয়েছি। তাদের জন্য আবাসন প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছি।

প্রথমবারের মতো আমরা সেনাবাহিনী প্যারা কমান্ডো ইউনিট চালু করেছি। ‘৯৬ সালে মেয়েদের সেনা ও বিমানবাহিনীতে নিয়োগের ব্যবস্থা করি। নারী পাইলট সংযোজন করে নতুন যুগের সূচনা করি। সেনাবাহিনীর প্রশিক্ষণের জন্য কেন্দ্র করে দিয়েছি।

শেখ হাসিনা আরও বলেন, সেনা সদস্যের জন্য দুই লাখ টাকার দুস্থ ভাতা ৬ লাখ টাকা করে দিয়েছি। এলপিআর-এর মেয়াদ ছয় মাসের পরিবর্তে এক বছর করা হয়েছে। সেনাবাহিনীর জেসিও পদকে দ্বিতীয় থেকে প্রথম শ্রেণির করা হয়েছে। সার্জেন্টকে তৃতীয় থেকে দ্বিতীয় শ্রেণিতে উন্নীত করেছি।






সঙ্গতিপূর্ণ আরো খবর

  • গণভবনে প্রধানমন্ত্রীর ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময়
  • আজ পবিত্র ঈদুল ফিতর
  • চাঁদ দেখা গেছে, কাল ঈদ
  • পুলিশি তৎপরতায় এবার দেশে কোনো দুর্ঘটনা ঘটেনি: আইজিপি
  • সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যে শুক্রবার ঈদ
  • অতিরিক্ত বাস ভাড়া রোধে মোবাইল কোর্ট : ডিএমপি কমিশনার
  • আজ থেকে রাশিয়া ফুটবল বিশ্বকাপ শুরু
  • আজ দেশে ফিরছেন প্রধানমন্ত্রী