জামিন পেলেও এখনই মুক্তি পাচ্ছেন না খালেদা

Share Button

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় বিএনপির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে জামিন দিয়েছে আদালত। প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন চার সদস্যের আপিল বেঞ্চ বুধবার সকালে এই আদেশ দিয়েছেন।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় সাজা হওয়ার কারণে তিনি কারাগারে আটক আছেন।

এর আগে সকালে আদেশ দেয়ার সময় নির্ধারিত থাকলেও, বাংলাদেশের অ্যাটর্নি জেনারেল আরও শুনানি করতে চেয়ে আবেদন করেন। পরে সেই শুনানির জন্য মঙ্গলবার দুপুর ১২টা সময় নির্ধারণ করা হয়।

মঙ্গলবার শুনানি শেষ হলে বুধবার সকালে আদালত এই আদেশ দিলেন।

এ বিষয়ে বিএনপির প্রেস উইং থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতির বরাত দিয়ে এই খবর জানিয়েছে বিবিসি বাংলা।

খালেদা জিয়ার জামিন বহাল রাখা হলেও এখনই কারাগার থেকে বের হতে পারছেন না। কারণ তাকে কুমিল্লার নাশকতার একটি মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।

এর আগে ৮ই ও ৯ই মে দুর্নীতি দমন কমিশন, রাষ্ট্রপক্ষ ও খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেন। ৯ই মে আপিল বিভাগ আদেশের জন্য মঙ্গলবার তারিখ নির্ধারণ করেন।

অর্থ আত্মসাতের অভিযোগে করা এই মামলায় খালেদা জিয়ার পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড ও অর্থ দণ্ড দিয়ে রায় দিয়েছে ঢাকার বিশেষ জজ আদালত। গত ৮ই ফেব্রুয়ারি নিম্ন আদালতে খালেদা জিয়ার সাজার রায় হয়। এরপর থেকেই তিনি ঢাকার পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারে রয়েছেন।

ওই রায়ের পর জামিন চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেন খালেদা জিয়া,। সেই আবেদনের শুনানি করে গত ১২ই মার্চ হাইকোর্ট তাকে চারমাসের অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দেন।

কিন্তু ওই জামিন স্থগিত চেয়ে আবেদন করে রাষ্ট্রপক্ষ এবং দুর্নীতি দমন কমিশন। আবেদনের শুনানির পর ১৪ই মার্চ আপিল বিভাগ জামিন স্থগিত করেন। পাশাপাশি দুদক ও রাষ্ট্রপক্ষকে নিয়মিত লিভ টু আপিল করতে বলেন।

সেই সঙ্গে স্থগিতাদেশ প্রত্যাহারের আবেদন করেন খালেদা জিয়ার আইনজীবীরা।






সঙ্গতিপূর্ণ আরো খবর

  • মানুষের অধিকার প্রতিষ্ঠায় আসুন ঐক্যবদ্ধ হই: ফখরুল
  • বিএনপি না এলেও নির্বাচন হবে: ওবায়দুল কাদের
  • নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করছে বিএনপি: ওবায়দুল
  • নির্বাচনে খালেদা জিয়াকে ঠেকাতে মরিয়া সরকার : ফখরুল
  • শেখ হাসিনার ৩৭তম স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস আজ
  • খালেদার জামিন বিচার বিভাগের স্বাধীনতার প্রমাণ: কাদের
  • খালেদা জিয়ার জামিন বিষয়ে শুনানি শেষ, আদেশ কাল