রাশিয়া বিশ্বকাপের ৩২ দলের স্কোয়াড

Share Button

ক্রীড়া ডেস্ক :: আর মাত্র তিন দিন পর শুরু হচ্ছে বিশ্বকাপ ফুটবল। আগামী বৃহস্পতিবার রাশিয়ার লুঝনিকি স্টেডিয়ামে পর্দা উঠবে ২১তম বিশ্বকাপ আসরের। রাশিয়ার ১১টি শহরের ১২টি ভেন্যু ঘুরে ১৫ জুলাই এই লুঝনিকিতেই আবার পর্দা নামবে এক মাসব্যাপী এই আসরের।

এরই মধ্যে চূড়ান্ত হয়ে গেছে অংশগ্রহণকারী ৩২টি দলের স্কোয়াড। কয়েকটি দলে বেশ কয়েকজন ফুটবলার ইনজুরির কারণে ছিটকে পড়েছেন। পরিবর্তিত খেলোয়াড়ও নেওয়া হয়ে গেছে ইতোমধ্যে। এখন লড়াইয়ের অপেক্ষায় সব দল। শেষ হাসি কে হাসে সেটােই এখন দেখোর বিষয়।
এবার জেনে নেওয়া যাক বিশ্বকাপে অংশগ্রহণকারী প্রতিটি দলের ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত স্কোয়াড।

গ্রুপ ‘এ’

রাশিয়ার ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল

গোলরক্ষক : ইগোর আকিনফিভ, ভ্লাদিমির গাবুলভ, আন্দ্রে লুনিয়ভ।
রক্ষণভাগ : ভ্লাদিমির গ্রানাত, ফেদর কুদরিয়াসভ, ইলিয়া কুতেপভ, আন্দ্রে সেমেনভ, সার্জেই ইগনাশেভিক, মারিও ফার্নান্দেস, ইগোর স্মলনিকভ।
মধ্যমাঠ : ইউরি গ্যাজিনস্কি, আলেকজান্ডার গলোভিন, অ্যালান জাগোয়েভ, আলেকজান্ডার ইরোখিন, ইউরি ঝিরকভ, দালের কুজইয়ায়েভ, রোমান জবনিন, আলেকজান্ডার সামেদভ, অ্যান্তন মিরানচুখ, ডেনিস চেরিশেভ।
আক্রমণভাগ : আর্তেম জিউভা, আলেক্সি মিরানচুক, ফেদর স্মলভ।

উরুগুয়ের ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল

গোলরক্ষক : ফার্নান্দো মুসলেরা, মার্টিন সিলভা, মার্টিন ক্যাম্পানা।
ডিফেন্ডার : দিয়েগো গোডিন, সেবাস্তিয়ান কোয়াটস, হোসে মারিয়া গিমেনেজ, ম্যাক্সিমিলিয়ানো পেরেইরা, গ্যাস্টন সিলভা, মার্টিন ক্যাসেরেস, গুইলার্মো ভারেলা।
মিডফিল্ডার : নাহিটান নান্দেজ, লুকাস তোরেইরা, ম্যাতিয়াস ভেকিনো, রদ্রিগো ভেনটাঙ্কুর, কার্লোস সানচেজ, ক্রিশ্চিয়ান রদ্রিগেজ, দিয়েগো ল্যাক্সালত।
স্ট্রাইকার : ক্রিশ্চিয়ান স্টুয়ানি, ম্যাক্সি গোমেজ, এডিনসন কাভানি, লুইস সুয়ারেজ, জোনাথন ইউরেটাভিসকিয়া, জিওর্জিয়ান ডি অ্যারাসকায়েতা।

মিশরের ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল

গোলরক্ষক : এসাম এল হাদারি, মোহামেদ এল শেনাউই, শেরিফ একরামি।
ডিফেন্ডার : আহমেদ ফাতহি, সা’দ সামির, আয়মান আশরাফ, মাহমুদ হামদি, মোহামেদ আবদেল-শাফি, আহমেদ হেগাজি, আলি গাবর, আহমেদ এল মোহাম্মদি, ওমর গাবের।
মিডফিল্ডার : তারেক হামেদ, শিকাবালা, আব্দাল্লাহ সাঈদ, সাম মুরসি, মোহামেদ এলনেনি, মাহমুদ কাহরাবা, রামাদান সোবহি, মাহমুদ হাসান, আমর ওয়ারাদা।
ফরোয়ার্ড : মারওয়ান মোহসেন, মোহামেদ সালাহ।

সৌদি আরবের ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল

গোলরক্ষক : মোহাম্মদ আল-ওয়াইজ, ইয়াসির আল মুসাইলেম, আব্দুল্লাহ আল-মায়ুফ।
ডিফেন্ডার : মানসুর আল-হারবি, ওসামা হাওজাভি (অধিনায়ক), আলি আল-বুলাইহি, ওমর হাওজাভি, মোহাম্মদ আল-ব্রেইক, ইয়াসের আল-শাহরানি, মোতাজ হাওজাভি।
মিডফিল্ডার : সালমান আল-ফারাজ, ইয়াহইয়া আল-শেহরি, হাত্তান বাহেব্রি, আব্দুল মালেক আল-খাইবারি, মোহাম্মদ কানো, আব্দুল্লাহ ওতায়েফ, আব্দুল্লাহ আল-খাইবারি, হোসাইন আল-মোগাওভি, তাইসির আল-জসিম, সালেম আল-দাওসারি।
ফরোয়ার্ড : ফাহাদ আল-মুওয়াল্লাদ, মোহাম্মাদ আল-সাহলাভি, মুহান্নাদ আসসিরি।

গ্রুপ ‘বি’

পর্তুগালের ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল

গোলরক্ষক : অ্যান্থোনি লোপেজ, বেতো, রুই প্যাট্রিসিয়া।
ডিফেন্ডার : ব্রুনে আলভেজ, কেডরিক, হোসে ফন্তে, মারিও রুই, পেপে, রাফায়েল গুয়েরেইরো, রিকার্ডো পেরেইরা, রুবেন ডিয়াজ।
মিডফিল্ডার : অ্যাদ্রিয়েন সিলভা, ব্রুনো ফার্নান্দেজ, হোয়াও মারিও, জোয়াও মুতিনহো, ম্যানুয়েল ফার্নান্দেজ, উইলিয়াম কার্ভালহো।
ফরোয়ার্ড : আন্দ্রে সিলভা, বার্নার্ডো সিলভা, ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো, জেলসন মার্টিন্স, গনক্যালো গুয়েদেস, রিকার্ডো কারেসমা।

স্পেনের ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল

গোলরক্ষক : পেপে রেইনা, ডেভিড দি গিয়া, কেপা আরিজাবালাগা।
ডিফেন্ডার : দানি কারভাহল, জেরার্ড পিকে, নাচো, আলভারো ওদ্রিজোলা, সিজার আজপিলিকুয়েতা, সার্জিও রামোস (অধিনায়ক), জর্ডি আলবা, নাচো মনরিয়েল।
মিডফিল্ডার : আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা, সার্জিও বুসকেটস, সাউল নিগুয়েজ, কোকে, ইস্কো, মার্কো আসেনিসও, থিয়াগো আলকানতারা, ডেভিড সিলভা।
ফরোয়ার্ড : ইয়াগো আসপাস, রদ্রিগো, ডিয়েগো কস্তা, লুকাস ভাজকুয়েজ।

মরক্কোর ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল

গোলরক্ষক : মুনির এল কাজুই, ইয়াসিন বোনু, আহমাদ রেদা।
ডিফেন্ডার : মেধি বেনাতিয়া, রোমান সেইস, ম্যানুয়েল দ্য কস্তা, বাদ্র বেনোন, নাবিল দিরার, আশরাফ হাকিমি, হামজা মেন্দিল।
মিডফিল্ডার : এমবার্ক বোসুফা, করিম এল আহমাদি, ইউসুফ আইত বেনাসের, সুফিয়ান আমরাবাত, ইউনুস বেলহানদা, ফ্যাকেল ফাজর, আমিন হারিত।
ফরোয়ার্ড : খালিদ বোতাইব, আজিজ বোহাদ্দুজ, আইয়ুব এল কা’বি, নরদিন আমরাবাত, মেধি সারসেলা, হাকিম জিয়েচ।

বিশ্বকাপে ইরানের ২৪ সদস্যের দল

গোলরক্ষক : আলিরেজা বেইরানভান্দ, মোহাম্মদ রশিদ মাজাহেরী, আমির আবেদজাদেহ
ডিফেন্ডার : এহসান হাজসাফি, রুজবেহ চেশমি, মিলাদ মোহাম্মদি, মোরতেজা পৌরালিগাঞ্জি, মোহাম্মদ রেজা খানজাদেহ, পেজমান মোন্তাজেরি, সাঈদ মজিদ হোসাইনি, রামিন রেজাইয়েন।
মিডফিল্ডার : মেহদি তোরাবি, সাঈদ এজাতোলাহি, মাসুদ শোজাঈ (অধিনায়ক), ওমিদ ইব্রাহিমী, ভাহিদ আমিরি।
ফরোয়ার্ড : করিম আনসারীফারদ, সালমান ঘোদ্দস, রেজা ঘুচান্নেজাদ, মাহদি তারেমি, আলিরেজা জাহানবাখশ, সরদার আজমাউন, আশকান দেজাগাহ।

গ্রুপ ‘সি’

ফ্রান্সের ২৩ সদস্যের মূল স্কোয়াড

গোলরক্ষক : হুগো লরিস, স্টিভ মান্দান্দা, আলফোন্সে আরেওলা
ডিফেন্ডার : জিব্রিল সিদিব, বেঞ্জামিন পাভার্দ, স্যামুয়েল উমতিতি, রাফায়েল ভারানে, প্রেসনেল কিমপেম্বে, আদিল র্যামি, বেঞ্জামিন মেন্ডি, লুকাস হার্নান্দেজ।
মিডফিল্ডার : পল পগবা, কোরেন্তিন তোলিসো, ব্লাইজ মাতৌদি, এনগোলো কন্তে, স্টিভেন জঞ্জি।
ফরোয়ার্ড : আন্তোনিও গ্রিজম্যান, অলিভিয়ের জিরু, কাইলিয়ান এমবাপে, ওসমান ডেম্বেলে, ফ্লোরিয়ান থাউবিন, নাবিল ফেকির, থমাস লেমার।

অস্ট্রেলিয়ার ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল

গোলরক্ষক : ম্যাথ্যু রায়ান, ব্র্যাড জোন্স, ড্যানি ভুকোভিক।
ডিফেন্ডার : মিলোজ ডিগেনেক, জেমস মেরেডিথ, মার্ক মিলিগান, ম্যাথ্যু জারমন, আজিজ বেহিচ, জশ রিসডন, ট্রেন্ট সেইন্সবারি।
মিডফিল্ডার : মাইল জেডিনাক (অধিনায়ক), ম্যাসিমো লুয়ঙ্গো, অ্যারোন ময়, জ্যাকসন ইরভাইন, টম রোগিক।
স্ট্রাইকার: টিম কাহিল, ম্যাথ্যু লেকি, টমি জুরিক, রবি ক্রুজ, অ্যান্ড্রু ন্যাবুট, জেমি ম্যাক্লারেন, ড্যানিয়েল আরজানি, দিমিত্রি পেটরাটোস।

পেরুর ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল

গোলরক্ষক : পেদ্রো গ্যালেস, কার্লোস ক্যাসেদা, হোসে কার্ভালো
ডিফেন্ডার : আলবার্তো রদ্রিগেজ, ক্রিশ্চিয়ান রামোস, মিগুয়েল আরাউজো, অ্যান্ডারসন সান্তামারিয়া, লুইস অ্যাডভিনচুলা, অ্যাদো করজো, মিগুয়েল ত্রাউকো, নিলসন লয়োলা।
মিডফিল্ডার : পেদ্রো অ্যাকুইনো, উইলডার ক্যার্টাগেনা, ইয়োশিমার ইয়োতুন, রেনাতো তাপিয়া, ক্রিশ্চিয়ান কিউয়েভা, পাওলো হার্তাদো, অ্যান্ডি পোলো, এডিসন ফ্লোরেজ।
ফরোয়ার্ড : জেফারসন ফারফান, আন্দ্রে ক্যারিওলা, রাউল রুইদিয়াজ, পাওলো গুয়েরেরো।

ডেনমার্কের ২৩ সদস্যের মূল দল

গোলরক্ষক : ফ্রেডেরিক রোনো, জোনাস লোসল এবং ক্যাসপার স্মেইচেল।
ডিফেন্ডার : জ্যানিক ভেস্তেরগার্ড, সিমন কেইয়ার (অধিনায়ক), জোনাস নুডসেন, আন্দ্রেস ক্রিস্টেনসেন, ম্যাথিয়াস জার্গেনসেন, হেনরিক ডালসগার্ড, জেন্স স্ট্রেইগার লারসেন।
মিডফিল্ডার : মাইকেল ক্রন-দেলি, উইলিয়াম ভিতভেদ কেভিস্ট, থমাস ডেলানি, ক্রিশ্চিয়ান এরিকসেন, লুকাস লেরাগার, ল্যাস স্কোনে।
স্ট্রাইকার : নিকোলাই জারগেনসেন, মার্টিন ব্র্যাথওয়েট, ক্যাসপার ডলবার্গ, ভিক্টর ফিসচার, ইউসুফ ইউরারি পউলসেন, আন্দ্রেস কর্নেলাস, পিওনে সিস্তো।

গ্রুপ ‘ডি’

আর্জেন্টিনার ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল

গোলরক্ষক : নাহুয়েল গুজম্যান, উইলি কাবায়েরো, ফ্রাঙ্কো আরমানি।
ডিফেন্ডার : গ্যাব্রিয়েল মার্কাদো, ক্রস্টিয়ান আনসালদি, নিকোলাস ওতামেন্দি, ফেডেরিকো ফাজিও, মার্কস রোহো, নিকোলাস তালিয়াফিকো, মার্কোস আকুনা, এডুয়ার্ডো সালভিও।
মিডফিল্ডার : হ্যাভিয়ের মাচেরানো, লুকাস বিলিয়া, এভার বানেগা, জিওভানি লো সেলসো, এনজো পেরেজ, এঞ্জেল ডি মারিয়া, ম্যাক্সি মেজা।
ফরোয়ার্ড : লিওনেল মেসি, পাওলো দিবালা, সার্জিও আগুয়েরো, গঞ্জালো হিগুয়াইন, ক্রিস্টিয়ান পাভন।

আইসল্যান্ডের ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল

গোলরক্ষক : হ্যানেস থর হ্যালডারসন, রুনার অ্যালেক্স রুনারসন, ফ্রেডেরিক স্ক্রাম।
ডিফেন্ডার : ক্যারি আরনার্সন, অ্যারি ফ্রেয়ার স্কুলাসন, বিরকির মার সায়েভারসন, এসভেরির ইনগি ইগাসন, হোর্ডার ম্যাগনাসন, হোলমার ওর্ন আইজলফসন, র্যাগনার সিগার্ডসন।
মিডফিল্ডার : জোহান বার্গ গুডমান্ডসন, বিরকির জারনাসন, অ্যারনর ইংভি ট্রস্টাসন, এমিল হ্যালফ্রেডসন, জিলফি সিগার্ডসন, ওলাফুর ইঙ্গি স্কুলাসন, রুরিক জিলাসন, স্যামুয়েল ফ্রিডজনসন, অ্যারোন গানারসন।
ফরোয়ার্ড : আলফ্রেড ফিনবোগাসন, বোজর্ন বার্গম্যান সিগার্ডাসন, জন দ্যাদি বোদভার্সন, আলবার্ট গুডমান্ডসন।

ক্রোশিয়ার ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল

গোলরক্ষক : ড্যানিয়েল সুবাসিচ, লভরে কালিনিচ, ডমিনিক লিভাকভিচ।
ডিফেন্ডার : সিমে ভ্রাসালকো, ইভান স্ট্রিনিচ, ভেদরান করলুকা, ডেজান লভরেন, টিন ইয়েদভাজ, দুয়ে সালেতা সার, ডোমাগজ ভিদা, ইয়সিপ পিভারিচ।
মিডফিল্ডার : লুকা মদ্রিচ (অধিনায়ক), ইভান রাকিটিচ, মাতেও কোভাচিচ, মারসেলো ব্রজোভিচ, ফিলিপ ব্রাদারিচ, মিলান বাদেলজ।
ফরোয়ার্ড : মারিও মানজুকিচ, ইভান পেরেসিচ, আন্দ্রে ক্রামারিচ, নিকোলা কালিনিচ, মারকো জাকা, আনতে রেবিক।

নাইজেরিয়ার ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল

গোলরক্ষক : ফ্রান্সিস উঝো, ইকেচুকু এজেনওয়া, ড্যানিয়েল আকপি।
ডিফেন্ডার: ব্রায়ান ইদু, এলডারসন ইচিজিলি, উইলিয়াম ট্রুস্ট-একং, লিওন বালোগান, আব্দুল্লাহি শেহু, চিদোজি আওয়াজিয়েম, টাইরন ইবুয়েহি, কেনেথ অমেরো।
মিডফিল্ডার: উইলফ্রেড এনদিদি, ওঘেনেকারো ইতেবো, জন অবি মিকেল (অধিনায়ক), জোয়েল অবি, ওগেনি ওনাজি, জন ওগু।
ফরোয়ার্ড: আহমেদ মুসা, ওডিওন ইঘালো, ভিক্টর মোসেস, সিমিওন এনওয়াংকো, কেলেচি ইহেনাচো, অ্যালেক্স ইওবি।

গ্রুপ ‘ই’

বিশ্বকাপে ব্রাজিলের ২৩ সদস্যের দল

গোলরক্ষক : অ্যালিসন, এডারসন, কাসিও
ডিফেন্ডার : ফ্যাগনার, দানিলো, মার্সেলো, ফিলিপে লুইস, মারকুইনস, মিরান্দা, থিয়াগো সিলভা, জেরোমেল।
মিডফিল্ডার : কাসেমিরো, ফার্নান্দিনহো, ফ্রেড, পউলিনহো, ফিলিপে কৌতিনহো, রেনাতো আগুস্তো, উইলিয়ান।
ফরোয়ার্ড : ডগলাস কস্তা, ফিরমিনো, গ্যাব্রিয়েল হেসুস, নেইমার, টাইসন।

সুইজারল্যান্ডের ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল

গোলরক্ষক : রোমান বুরকি, ইয়োভন এমভোগো, ইয়ান সোমের।
ডিফেন্ডার : স্টিফেন লিচস্টেইনার (অধিনায়ক), ফ্রাঙ্কোইজ মোবান্ডজি, নিসো এলভেদি, ম্যানয়েল আকানজি, মিকায়েল ল্যাঙ, রিকার্ডো রদ্রিগেজ, ইয়োহান জুরু, ফ্যাবিয়ান স্কার।
মিডফিল্ডার : রেমো ফ্রুয়েলার, গ্রানিত জাকা, ভ্যালন বেহরামি, স্টিভেন জুবের, ব্লেরিম জেমাইলি, জেলসন ফার্নান্দেজ, ডেনিস জাকারিয়া, জাদরান শাকিরি।
স্ট্রাইকার : ব্রিল এমবোলো, হ্যারিস সেফেরোভিক, মারিও গাভ্রানোভিক, জোসিপ দ্রিমিক।

কোস্টারিকার ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল

গোলরক্ষক : কেইলর নাভাস, প্যাট্রিক প্যাম্বার্টন, লিওনেল মোরেইরা।
ডিফেন্ডার : ক্রিশ্চিয়ান গ্যাম্বোয়া, ইয়ান স্মিথ , রোনাল্ড ম্যাতেরিতা, ব্রায়ান অভিয়েদো, অস্কার দুয়ার্তে, গিয়ানসারলো গঞ্জালেজ, ফ্রান্সিসকো স্যাল্ভো, কেন্ডাল ওয়াস্টন, জনি অ্যাকোস্টা।
মিডফিল্ডার : ডেভিড গুজম্যান, ইয়েলসিন তেজেদা, সেলসো বোর্গেস, র‌্যান্ডাল আজোফেইফা, রডনি ওয়ালেস, ব্রায়ান রুইজ (অধিনায়ক), ড্যানিয়েল কলিন্দ্রেস, ক্রিশ্চিয়ান বোলানস।
ফরোয়ার্ড : ইয়োহান ভেনেগাস, জোয়েল ক্যাম্পবেল, মার্কো ইউরেনা।

সার্বিয়ার ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল

গোলরক্ষক : ভ্লাদিমির স্টোজকোভিক, প্রেদরাগ রাজকোভিক, মার্কো দিমিত্রোভিক।
ডিফেন্ডার : আন্তোনিও রুকাভিনা, দুস্কো তোসিক, ইউরোজ স্পাজিক, ব্রানিস্লাভ ইভানোভিক, আলেকজান্ডার কোলারভ (অধিনায়ক), মিলোস ভেলজকোভিক, মিলান রোদিক, নিকোলা মিলেনকোভিক।
মিডফিল্ডার : লুকা মিলিভোজেভিক, আন্দ্রিজা জিভকোভিক, দুজান তাদিক, মার্কো গ্রুজিক, ফিলিপ কোস্তিক, নেমানজা ম্যাটিক, সার্গেই মিলিনকোভিক-সাভিক, অ্যাদেম এলজাজিক।
স্ট্রাইকার : আলেকজান্ডার মিত্রোভিক, আলেকজান্ডার প্রিজোভিক, নেমানজা রাদোনজিক, লুকা জোভিক।

গ্রুপ ‘এফ’

জার্মানির ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল

গোলরক্ষক : ম্যানুয়েল ন্যুয়ার, মার্ক আন্দ্রে টার স্টেগান, কেভিন ট্র্যাপ।
ডিফেন্ডার : মারভিন প্ল্যাটেনহার্ডট, জোনাস হেক্টর, মাথিয়াস গিনটার, ম্যাটস হামেলস, নিকলাস শুলে, জেরোমে বোয়াটেং, জসুযা কিমিচ, আর্ন্তোনিও রুডিগার।
মিডফিল্ডার : সামি খেদিরা, হুলিয়ান ড্রাক্সলার, টনি ক্রুস, মেসুত ওজিল, থমাস মুলার, লিওন গোরেৎজা, সেবাস্তিয়ান রুডি, হুলিয়ান ব্র্যান্ডট, ইলকে গুন্ডোগান।
ফরোয়ার্ড : টিমো ওয়ার্নার, মার্কো রেউস, মারিও গোমেজ।

মেক্সিকোর ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল

গোলরক্ষক : গুইলের্মো ওচোয়া, আলফ্রেডো তালাভেরা, হোসে ডি হেসুস করোনা।
ডিফেন্ডার : হুগো আয়ালা, কার্লোস স্যালসেদো, রাফায়েল মার্কুয়েজ, দিয়েগো রেয়েস, হেক্টর মোরেনো, হেক্টর হেরেরা, এডসন আলভারেজ।
মিডফিল্ডার : জোনাথন ডস সান্তোস, মিগুয়েল লাইয়ুন, জিওভানি ডস সান্তোস, হিসুস ম্যানুয়েল করোনা, আন্দ্রেস গুয়ার্দাদো (অধিনায়ক), হ্যাভিয়ের অ্যাকুইনো, হেসুস গ্যালার্ডো।
ফরোয়ার্ড : মার্কো ফ্যাবিয়ান, রাউল জিমেনেজ, কার্লোস ভেলা, হ্যাভিয়ের হার্নান্দেজ, ওরিবে পেরালতা, হার্ভিং লোজানো।

সুইডেনের ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল

গোলরক্ষক : রবিন ওলসেন, কাল-জোহান জনসন, ক্রিস্টোফার নর্দফেল্ডট।
ডিফেন্ডার : মিকায়েল লাসটিগ, ভিক্টর নিলসন লিন্ডেলফ, আন্দ্রেস গ্রাঙ্কভিস্ট, মার্টিন ওলসেন, লুডউইগ অগাস্টিনসন, ফিলিপ হেলান্ডার, এমিল ক্রাফথ, পোন্টাস জ্যানসন।
মিডফিল্ডার : সেবাস্তিয়ান লারসন, আলবিন একদাল, এমিল ফরসবার্গ, গুস্তাভ এসভেনসন, অস্কার হিলজেমার্ক, ভিক্টর ক্লায়েসন, মার্কাস রোহডেন, জিমি ডার্মাজ।
স্ট্রাইকার : মার্কাস বার্গ, জন গুইদেত্তি, আইজ্যাক কিয়েসে থেলিন, ওলা তোইভোনেন।

দক্ষিণ কোরিয়ার ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল

গোলরক্ষক : কিম সিউং গিউ, কিম জিন হিউন, চো হিউন উ।
ডিফেন্ডারস : লি ইয়ং, জুং সিউং হিউন, ওহ বান সুক, ইউন ইয়ুং সুন, পার্ক জু হো, কিম মিন উ, হং চুল, কিম ইয়ুং গুন, জ্যাং হিউন সু, গো ইয়ু-হান।
মিডফিল্ডার : জু সি জং, লি সিউং উ, কো জা সেওল, জাং উ ইয়ং, কি সিউং ইয়ুয়েং (অধিনায়ক), লি জায়ে-সুং, মুন সিওন-মিন।
ফরোয়ার্ড : কিম শিন উক, সন হিউং মিন, ওয়াং হি চান।

গ্রুপ ‘জি’

বেলজিয়ামের ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল

গোলরক্ষক: থিবাত কুর্তোয়া, সাইমন মিগনোলেট, কোয়েন ক্যাস্তিলস।
ডিফেন্ডার: টবি অ্যালডারউইয়ারল্ড, থমাস ভারমালিন, ভিনসেন্ট কম্পানি, ইয়ান ভারটোঙ্গেন, থমাস মিউনার, ডেডির্ক বোয়াতা, লেন্ডার ডেনডোঙ্কার।
মিডফিল্ডার: অ্যাক্সেল উইটজেল, কেভিন ডি ব্রুয়েন, মারুয়ানে ফেলাইনি, ইয়ানিক ক্যারাসকো, থোর্গান হ্যাজার্ড, ইউরি তিয়েলম্যান্স, নাসের চাদলি, মুসা দেম্বেলে।
ফরোয়ার্ড: রোমেলু লুকাকু, ইডেন হ্যাজার্ড (অধিনায়ক), ড্রাইস মারটেন্স, আদনান জানুজাই, মিচি বাতশুই।

পানামার ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল

গোলরক্ষক : হোসে ক্যালদেরন, জেমি পেনেদো, অ্যালেক্স রদ্রিগেজ।
ডিফেন্ডার : মাইকেল আমির মুরিলো, হ্যারল্ড কামিংস, ফিদেল এসকোবার, রোমান তোরেস, অ্যাডলফো মাকাদো, এরিক ডেভিস, লুইস ওভালে, ফেলিপে ব্যালয় (অধিনায়ক)।
মিডফিল্ডার : গ্যাব্রিয়েল গোমেজ, এডগার বার্সেনাস, আরমান্দো কুপার, ভ্যালেন্তিন পিমেন্টেল, রিকার্ডো অ্যাভিলা, অ্যানিবাল গুডোয়, হোসে লুইস রদ্রিগেজ।
স্ট্রাইকার : ব্লাজ পেরেজ, গ্যাব্রিয়েল তোরেস, ইসমায়েল দিয়াজ, আবদেইল অ্যারোয়, লুইজ তাজেদা।

তিউনিশিয়ার ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল

গোলরক্ষক : আয়মান মাথলৌথি (অধিনায়ক), ফারুক বিন মুস্তাফা, মোয়েজ হোসেন।
ডিফেন্ডার : সিয়াম বিন ইউসুফ, ইয়োহান বিনালুয়ানে, ইয়াসিন মেরিয়াহ, ওসামা হাদ্দাদি, র্যামি বেদুই, দাইলান ব্রুন, আলি মালোল, হামদি নাগুয়েজ।
মিডফিল্ডার : আনিস বদ্রি, ফারজানি সাসি, মোহাম্মদ আমিন বিন ওমর, ইলিয়াস এসখিরি।
ফরোয়ার্ড : সেইফে-দিন খুই, ফখরুদ্দিন বিন ইউসুফ, ওয়াহবি খাজরি, আহমেদ খলিল, বাসেম সারফি, সাবির খলিফা, ঘাইলেন চালালি, নাইম স্লিতি।

ইংল্যান্ডের ২৩ সদস্যের দল

গোলরক্ষক : জ্যাক বাটল্যান্ড, জর্ডান পিকফোর্ড, নিক পোপ।
ডিফেন্ডার : কাইল ওয়াকার, জন স্টোনস, হ্যারি ম্যাগুইরে, কেইরান ট্রিপার, ড্যানি রোজ, অ্যাশলে ইয়াং, ফিল জোনস, গ্যারি কাহিল, ফাবিয়ান ডেলফ, ট্রেন্ট আলেক্সান্ডার-আর্নল্ড।
মিডফিল্ডার : এরিক ডায়ার, ডেলে আলি, হেসে লিনগার্ড, জর্দান হেন্ডারসন, রুবেন লফটাস-চেক।
ফরোয়ার্ড : জ্যামি ভার্ডি, মার্কস রাশফোর্ড, রাহিম স্টার্লিং, হ্যারি কেইন (অধিনায়ক), ড্যানি ওয়েলবেক।

গ্রুপ ‘এইচ’

পোল্যান্ডের ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল

গোলরক্ষক : বার্তোজ বিয়ালকোস্কি, লুকাজ ফ্যাবিয়ানস্কি, ওজসিয়াখ এসচিজনি।
ডিফেন্ডোর : মাইকেল প্যাদজান, আর্তার জেদরেজেজিক, থিয়াগো সিওনেক, জ্যান বেডনারেক, কামিল গ্লিক, বার্তোজ বেরেসজিনস্কি, লুকাজ পিসজজেক।
মিডফিল্ডার : জ্যাক গোরালস্কি, ক্যারোল লিনেত্তি, গ্রেগোরিজ ক্রিচোইয়াক, কামিল গ্রোসিকি, ম্যাকিয়েজ রাইবাস, জ্যাকব ব্লাসজিকোস্কি, স্লাওমির পেসজকো, পিওতর জিয়েলিনস্কি, রাফাল কুরজাওয়া।
ফরোয়ার্ড : আর্কাদিয়াজ মিলিক, রবার্ট লেওয়ানডস্কি (অধিনায়ক), লুকাজ টিওডোরজকি, দাউদ কুয়োনাকি।

সেনেগালের ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল

গোলরক্ষক: আবদোলাই দিয়ালো, আলফ্রেড গোমিস, খাদিম এনদিয়াই।
ডিফেন্ডার: সালিউ সিস, কালিদু কোলিবালি, কারা এমবোজি, ইউসুফ সাবালি, লামিন গাসামা, মুসা ওয়াগ।
মিডফিল্ডার: ইদ্রিসা গুইয়ে, সালিফ সানে, চেইখো কোয়েত (অধিনায়ক), আলফ্রেড এনদিয়াই, চেইখ এনদিয়াই, বাদু এনদিয়াই।
ফরোয়ার্ড: মুসা সো, মামে বিরাম দিউফ, সাদিও মানে, মুসা কোনাতে, দিয়াফ্রা সাখো, ইসমাইলা সার, কেইটা বালদে, এমবায়ে নিয়াং।

কলম্বিয়ার ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল

গোলরক্ষক : ডেভিড ওসপিনা, ক্যামিলো ভার্গাস,হোসে ফার্নান্দো কুয়াদ্রাদো।
ডিফেন্ডার : ক্রিশ্চিয়ান জাপাতা, অস্কার মুরিলো, সান্তিয়াগো অ্যারিয়াস, ইয়েরি মিনা, ইয়োহান মোজিকা, ফরিদ দিয়াজ, ডেভিসন সানচেজ।
মিডফিল্ডার : উইলমার ব্যারিওস, কার্লোস সানচেজ, অ্যাবেল অ্যাগুইলার, হামেশ রদ্রিগেজ, হুয়ান গুইলের্মো কুয়াদ্রাদো, মাতেউস উরিব, জেফারসন লার্মা, হুয়ান ফার্নান্দো কুইন্তেরো।
ফরোয়ার্ড : রাদামেল ফ্যালকাও (অধিনায়ক), কার্লোস বাক্কা, লুইস মুরিয়েল, মিগুয়েল বোরজা, হোসে ইজকুয়ের্দো।

জাপানের ২৩ সদস্যের চূড়ান্ত দল

গোলরক্ষক : আইজি কাওয়সিমা, মাসাকি হিগাশিগুচি, কসুকে নাকামুরো
ডিফেন্ডার : ইয়ুতো নাগাটোমো, তমোইয়াকি মাকিনো, ওয়াতারু এন্দো, মায়া ইয়োশিদা, হিরকো সাকাই, গোতোকু সাকাই, গেন শজি, নাওমিচি ইয়েদা
মিডফিল্ডার : মাকোতো হাসেবে, তোশিহিরো আয়োয়ামা, কেইসুকে হোন্ডা, তাকাশি ইনুই, শিনজি কাগাওয়া, হোতারু ইয়ামাগুচি, জেঙ্কি হারাগুচি, তাকাশি উসামি, গাকু শিবাসাকি, রায়োতা ওশিমা, কেন্তো মিসাও, ইয়োসুকে, ইদেগুচি
স্ট্রাইকার : শিনজি ওকাজাকি, ইউয়া ওসাকো, ইয়োশিনরি মুতো, তাকুমা আসানো।






সঙ্গতিপূর্ণ আরো খবর

  • বিশ্বচ্যাম্পিয়ন জার্মানিকে হারিয়ে মেক্সিকোর চমক
  • নাইজেরিয়াকে হারিয়ে ক্রোয়েশিয়ার শুভ সূচনা
  • সৌদিকে ৫-০ তে উড়িয়ে দিয়ে রাশিয়ার দুর্দান্ত বিশ্বকাপ যাত্রা শুরু
  • রাশিয়া বিশ্বকাপের জমকালো উদ্বোধনী অনুষ্ঠান
  • রাশিয়া বিশ্বকাপ: আজ মুখোমুখি রাশিয়া-সৌদি আরব
  • নারী ক্রিকেটারদের প্রত্যেকে পাবেন ১০ লাখ টাকা
  • ভারতকে হারিয়ে এশিয়ার চ্যাম্পিয়ন বাংলাদেশের মেয়েরা