ব্রেস্ট ক্যান্সার হওয়ার ৫ কারণ

Share Button

স্বাস্থ্য ডেস্ক :: বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে নারীদের ব্রেস্ট ক্যান্সারের ঝুঁকি দেখা যায়। নারীদের পাশাপাশি এখন পুরুষদেরও এই ঝুঁকি দেখা যাচ্ছে। ইদানিং প্রতিনিয়ত এই মরণ ব্যাধিতে আক্রান্ত হচ্ছেন অসংখ্য নারী-পুরুষ। বিভিন্ন কারণে এই ব্রেস্ট ক্যান্সারের ঝুঁকি দেখা দিচ্ছে।

অতিরিক্ত ফ্যাটযুক্ত খাবার
যারা অতিরিক্ত ফ্যাটযুক্ত খাবার খান এবং খাদ্যতালিকায় একেবারেই শাক সবজি রাখেন না তাদের ক্ষেত্রে স্তন ক্যান্সারে আক্রান্তের ঝুঁকি অনেক বেশি। এছাড়াও দীর্ঘসময় টিনজাত খাবার খাওয়া, প্রিজারভড খাবার, কৃত্তিম মিষ্টি ও রঙযুক্ত খাবার খাওয়া নারী ও পুরুষের স্তন ক্যান্সারে আক্রান্তের জন্য দায়ী।

ভুল সাইজের ব্রা ব্যবহারের কারণে
ভুল সাইজের ব্রা ব্যবহার করা স্তন ক্যান্সারের অন্যতম লক্ষণ। স্তনের আকার অনুযায়ী সঠিক মাপের ব্রা ব্যবহার করুন। কেননা নয়তো এটি আপনার স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকিকে বাড়িয়ে দিতে পারে অনেকখানি। স্তনের আকারের চেয়ে বড় মাপের ব্রা স্তনের টিস্যুগুলোকে ঠিকমত সাপোর্ট দিতে পারে না আবার অতিরিক্ত ছোট বা টাইট ব্রা স্তনের তরলবাহী লসিকাগুলো কেটে ফেলতে পারে।

দেরিতে বিয়ে হওয়ার কারণে
অনেক বেশি বয়স পর্যন্ত বিয়ে না করা এবং ৩০ বছর বয়সের পর নারীদের সন্তানের মা হওয়া কিংবা সন্তান না নেওয়া নারীদের স্তন ক্যান্সারের ঝুঁকি অনেকাংশে বাড়িয়ে দেয়।

শারীরিক পরিশ্রমের অভাবে
নারীরা যদি একেবারেই শারীরিক পরিশ্রম না করে তাহলে ব্রেস্ট ক্যান্সারের ঝুঁকি হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। আর তাছাড়া শারীরিক পরিশ্রম না করার ফলে ওজনও বেড়ে যায়, এতেও ক্যান্সারের ঝুঁকি থাকে। আবার অতিরিক্ত শারীরিক পরিশ্রমও করা উচিৎ নয়।

অতিরিক্ত কেমিক্যাল প্রসাধনী ব্যবহারে
দীর্ঘদিন ধরে যদি অতিরিক্ত কেমিক্যালযুক্ত কসমেটিক, বডি স্প্রে, বডি লোশন ব্যবহারে ব্রেস্ট ক্যান্সার হয়। এছাড়া এয়ার ফ্রেশনার, ডিওডোরেন্ট এবং তেজস্ক্রিয় পদার্থের সংস্পর্শে থাকলে স্তন ক্যান্সারে আক্রান্তের সম্ভাবনা থাকে।