শনিবার, অক্টোবর ২০, ২০১৮

ভারতে পূজার ভিড়ে ট্রেন, নিহত অন্তত ৫০

রেল লাইনে দাঁড়িয়ে থাকা ভিড়ের ওপর দিয়ে চলে গেল দ্রুত গতির ট্রেন। শুক্রবার সন্ধ্যায় ভয়াবহ এই দুর্ঘটনা ঘটেছে ভারতের পাঞ্জাব প্রদেশের রাজধানী অমৃতসরের চৌরা বাজার এলাকায়।

প্রাথমিকভাবে জানা গেছে, কমপক্ষে ৫০ জন নিহত হয়েছেন এবং কয়েকশ মানুষ আহত হয়েছেন। মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে জানায় পুলিশ এবং উদ্ধারকারীরা। ভারতীয় গণমাধ্যমের খবরে প্রকাশ।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, রেল লাইনের পাশে দশেরার রাবণের মূর্তি পোড়ানো হচ্ছিল। রেললাইনের পাশে সেই রাবণ পোড়ানো দেখতে দাঁড়িয়ে ছিলেন কয়েকশ মানুষ।

রাবণ পোড়ানোর সময়ে বাজির আগুন ছিটকে আসতে থাকে। তখনই দর্শকরা সরে লাইনের ওপর উঠে আসেন। তারা খেয়াল করেননি তখন আপ এবং ডাউন দুই লাইনেই এক্সপ্রেস ট্রেন আসছে। কোনও দিকে সরতে পারেননি কয়েকশ মানুষ। ট্রেনের চাকার তলায় পিষে যায় একের পর এক মানুষের দেহ।

অমৃতসরের পুলিশ কমিশনার এস এস শ্রীবাস্তব এনডিটিভিকে জানান, এই দুর্ঘটনায় ৫০ জনের বেশি নিহত হয়েছেন। আমরা লোকজনদের সরিয়ে নেয়ার ব্যবস্থা করেছি। অন্তত ৬০ জনকে আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, অন্তত ৭০০ মানুষ ঘটনাস্থলে ছিলেন। নিহতদের মধ্যে শিশুও রয়েছে।

বার্তা সংস্থা এএনআইকে একজন প্রত্যক্ষদর্শী জানান, স্থানীয় প্রশাসন ও দুর্গাপূজা কমিটি এই দুর্ঘটনার জন্য দায়ী। ট্রেন আসার সময় তাদের সতর্কতা সংকেত বাজানো উচিত ছিল। ট্রেন থামানো বা গতি কমানোর বিষয়টি আগে থেকেই নিশ্চিত করা তাদের দায়িত্ব ছিল।’

একজন জ্যেষ্ঠ পুলিশ কর্মকর্তা জানান, হতাহতের সংখ্যা নির্ণয় করার চেষ্টা করা হচ্ছে। হতাহতদের হাসপাতালে নেয়া হচ্ছে।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের গোড়াতেই গলদ: কাদের

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, শুরুতেই জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে গোড়াতেই গলদ, তারা জনগণের কাছে যাওয়ার আগে কূটনীতিকদের সঙ্গে বৈঠক করায় নবগঠিত জোট ‘জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট’ নেতাদের সমালোচনা করেছেন। এরমধ্য দিয়েই প্রমাণ হয়েছে ঐক্যফ্রন্ট নেতারা দেউলিয়া আর জনসমর্থনহীন।

শুক্রবার বিকেলে গাজীপুরের কালিয়াকৈরে চন্দ্রায় ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক পরিদর্শন শেষে সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশ্নের জবাবে সড়ক ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এ কথা বলেন। ঢাকা-টাঙ্গাইল মহাসড়ক চার লেনে উন্নীত করার কাজ পরিদর্শন করতে সেখানে আসেন তিনি।

চন্দ্রা ফ্লাইওভারের কাজ ৯০ ভাগ শেষ হয়েছে জানিয়ে সেতু মন্ত্রী জানান, আগামী দুই মাসের মধ্যেই এটি চালু করা হবে। এসময় তিনি আরো বলেন, দেশে এখন নির্বাচনের পরিবেশ বিরাজ করছে এবং জনগণ উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট দিতে চায়। সেই ভোটমুখী জনগণকে আন্দোলনমুখী যারা করতে চাইবে তারা বোকার স্বর্গে বসবাস করছে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ঐক্যফ্রন্ট বিদেশিদের আস্থায় আনতে চায়। জনগণের আস্থার প্রয়োজন আছে বলে মনে হয় না। যদি জনগণের প্রতি তাদের আস্থা থাকত, তাহলে ঐক্যফ্রন্ট গঠনের পর প্রথম তারা কেন সাক্ষাৎ করেছে বিদেশিদের সাথে? তারা জনগণের কোনো সমাবেশে যায়নি। এর মধ্য দিয়ে প্রমাণ হয় এরা কতটা দেউলিয়া, এরা কতটা জনসমর্থনহীন। ঐক্যফ্রন্ট গঠনের পর অবশ্য জনগণের কাছে যাওয়ার কর্মসূচিও এসেছে।

তিনি বলেন, আগামী ২৩ অক্টোবর সিলেটে সমাবেশের আবেদন করেছে তারা। যদিও পুলিশ এখনও সে অনুমতি দেয়নি। গত ১৩ অক্টোবর ঐক্যফ্রন্ট গঠনের পর প্রথমবারের এই বৈঠক বেশ আলোচনার খোরাক জুগিয়েছে। কূটনীতিকদের পক্ষ থেকে জানতে চাওয়া হয়েছে, এই ফ্রন্টের নেতা কে, তারা ক্ষমতায় এলে প্রধানমন্ত্রী কে হবেন ইত্যাদি ইত্যাদি। তবে আপাতদৃষ্টিতে ফ্রন্টের নেতৃত্বে ড. কামাল হোসেন থাকলেও ভবিষ্যতের প্রধানমন্ত্রী কে হবেন, সে প্রশ্নের জবাব তিনি সংসদের হাতে ছেড়ে দিয়েছেন।

কাদের আরো বলেন, সিলেটে ঐক্যফ্রন্টের সমাবেশ বন্ধ করা হয়নি। নিরাপত্তাজনিত কারণে আপাতত স্থগিত রাখা হয়েছে। আগামী জাতীয় নির্বাচনকে সামনে রেখে বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তিসহ সাত দফা দাবি জানিয়েছে ঐক্যফ্রন্ট। দাবি পূরণ না হলে আন্দোলনের কথাও জানিয়েছে তারা। তবে ওবায়দুল কাদের এই আন্দোলনের হুমকিকে পাত্তা দিচ্ছেন না।

তিনি বলেন, এরা ১০ বছর ধরে বারবার আন্দোলনের ডাক দিয়ে বারবার ব্যর্থ হয়েছে। পাবলিক এখন ইলেকশন মুডে আছে, কেউ এখন আন্দোলনের দিকে তাকিয়ে নেই। ঐক্যের ডাকে জনগণ সাড়া দেয়নি, আন্দোলনের ডাকে জনগণ সাড়া দেবে? জনগণ উৎসবমুখর পরিবেশে ভোট দিতে চায়। সেই ভোটমুখী জনগণকে আন্দোলনমুখী যারা করতে চাইবে, তারা বোকার স্বর্গে বাস করছে।

এসময় মন্ত্রীর সাথে সড়ক ও জনপথ বিভাগের ঢাকা বিভাগীয় প্রকৌশলী সবুজ উদ্দিন খান ও সড়ক বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

জাতীয় ঈদগাহে আইয়ুব বাচ্চুর জানাজা

কিংবদন্তি ব্যান্ড শিল্পী আইয়ুব বাচ্চুর জানাজা অনুষ্ঠিত হয়েছে। শুক্রবার বাদ জুমা জাতীয় ঈদগাহে তার জানাজা হয়। জানাজায় হাজারো মানুষ অংশ নেন।

প্রথম জানাজার পর আইয়ুব বাচ্চুর মরদেহ মগবাজারে তাঁর নিজের স্টুডিও এবি কিচেনে নিয়ে যাওয়ার কথা। আইয়ুব বাচ্চুর দ্বিতীয় জানাজা হবে চ্যানেল আই প্রাঙ্গণে। দ্বিতীয় জানাজা শেষে এই শিল্পীর মরদেহ ফের হিমঘরে রাখা হবে।

এর আগে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে কিংবদন্তি ব্যান্ড শিল্পী আইয়ুব বাচ্চুর মরদেহে শ্রদ্ধা জানান সর্বস্তরের মানুষ। শুক্রবার সকাল সোয়া ১০টায় তার মরদেহ শহীদ মিনারে নেয়া হয়। সেখানে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের তত্ত্বাবধানে অনুরাগী-শুভাকাঙ্ক্ষীসহ সর্বস্তরের মানুষ জানান ভালোবাসার ফুলেল শ্রদ্ধাঞ্জলি।

তার মরদেহের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে শহীদ মিনারে আসেন কুমার বিশ্বজিৎ, মানাম আহমেদ, শাফিন আহমেদসহ সংগীত ভুবনের অনেক তারকা। এ ছাড়া ছিলেন অভিনেত্রী সুবর্ণা মুস্তাফা ও শমী কায়সার।

বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরসহ রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গও এসেছিলেন।

এর আগে, বৃহস্পতিবার সকালে নিজ বাসভবন থেকে স্কয়ার হাসপাতালে নেয়া হলে সকাল ৯টা ৫৫ মিনিটে ডাক্তার তাকে মৃত ঘোষণা করেন। মৃত্যুর আগে এ রকস্টারের বয়স হয়েছিল ৫৬ বছর। তাকে ভারতীয় উপমহাদেশের শ্রেষ্ঠ গিটারিস্ট বলা হয়ে থাকে।

আইয়ুব বাচ্চু চলে গেলেও তার গান ও গিটারের ছয় তারের সুর বাঙালি শ্রোতাদের হৃদয়ে ধ্বনিত হবে আজীবন। ব্যান্ড দল এলআরবির লিড গিটারিস্ট ও ভোকালিস্ট আইয়ুব বাচ্চু ছিলেন একাধারে গীতিকার, সুরকার এবং প্লেব্যাক শিল্পী।

দুই সন্তানের অপেক্ষায় রয়েছে বাবার মৃতদেহ। কানাডায় রয়েছেন আইয়ুব বাচ্চুর ছেলে আহনাফ তাজোয়ার। তিনি পরিসংখ্যান বিষয়ে পড়াশোনা করছেন ইউনিভার্সিটি অব ব্রিটিশ কলম্বিয়ায়। মেয়ে ফাইরুজ সাফরা আইয়ুব থাকেন অস্ট্রেলিয়ায়। আজ দুজনেই উড়ে আসছেন বাবাকে শেষ দেখা দেখতে। শনিবার দুপুরে মায়ের কবরেই সমাহিত করা হবে আইয়ুব বাচ্চুকে।

বৃহস্পতিবার আইয়ুব বাচ্চুর আকস্মিক মৃত্যুর খবর শুনে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ এবং সৌদি আরবে অবস্থানরত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

সৌম্যের সেঞ্চুরিতে উড়ে গেল জিম্বাবুয়ে

প্রস্তুতি ম্যাচে সৌম্য সরকারের অপরাজিত সেঞ্চুরিতে জিম্বাবুয়েকে ৮ উইকেটে পরাজিত করেছে বিসিবি একাদশ।

শুক্রবার বিকেএসপি মাঠে বিসিবি একাদশের বিপক্ষে ব্যাট করতে নেমে ১০ উইকেট হারিয়ে ১৭৮ রান করে জিম্বাবুয়ে। জবাবে ১১ ওভার বাকি থাকতেই মাত্র দুই উইকেট হারিয়ে সহজ জয় তুলে নেয় বিসিবি একাদশ।

অপরাজিত সেঞ্চুরি করলেও জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজে নেই সৌম্য সরকার।

ঢাকা, চট্টগ্রাম ও সিলেটে তিনটি ওডিআই এবং দুটি টেস্ট ম্যাচ খেলতে কয়েক দিন আগে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দল ঢাকায় পৌঁছায়।

মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওয়ানডে শুরু হবে আগামী রোববার।

প্রস্তুতি ম্যাচের সংক্ষিপ্ত স্কোর

জিম্বাবুয়ে ১৭৮/১০, ৪৫.২ ওভারে (হ্যামিল্টন মাসাকাদজা ১০২, এলটন চিগুম্বুরা ৪৭। ইবাদত হোসেন ৫/১৯, মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন ৩/৩২, মোহর শেখ ১/১৮, ইমরান আলী ১/২৮)।

বিসিবি একাদশ ১৮১/২, ৩৯ ওভারে (মিজানুর রহমান ৮, ফজলে মাহমুদ ১৩, সৌম্য সরকার ১০২*, মোসাদ্দেক হোসেন ৩৩ (রিটায়ার্ড নটআউট), আরিফুল হক ৯*। সিকান্দার রাজা ১/২১)।

ফল: বিসিবি একাদশ ৮ উইকেটে জয়ী।

৫০ টাকায় দেখা যাবে বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে ম্যাচ

দীর্ঘ নয় মাস পর মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে ফিরছে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট। শুধু মিরপুর নয়, চট্টগ্রাম-সিলেটেও হবে ক্রিকেট-উৎসব।

তিন ভেন্যুতে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে তিনটি ওয়ানডে ও দুটি টেস্ট খেলবে বাংলাদেশ। ৫০ টাকায় সুযোগ মিলবে জিম্বাবুয়ে সিরিজ দেখার। টেস্ট সিরিজে মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামের পূর্ব গ্যালারি, সিলেট আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামের পশ্চিম ও গ্রিন গ্যালারির টিকিটের দাম ধরা হয়েছে ৫০ টাকা।

কোন গ্যালারির টিকিটের কত দাম, আজ শুক্রবার বিজ্ঞপ্তি দিয়ে সেটি জানিয়ে দিয়েছে বিসিবি। মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডে রোববার। খেলা দেখতে চাইলে টিকিট কিনতে পারবেন শনিবার থেকেই।

টিকিট পাওয়া যাবে শহীদ সোহরাওয়ার্দী ইনডোর স্টেডিয়াম-সংলগ্ন কাউন্টারে। ২৪ ও ২৬ অক্টোবর চট্টগ্রামে হতে যাওয়া পরের দুই ওয়ানডের টিকিট বিক্রি হবে ২৩ অক্টোবর থেকে। টিকিট পাওয়া যাবে এম এ আজিজ স্টেডিয়াম ও জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামের কাউন্টারে। ৩ নভেম্বর থেকে শুরু সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামের অভিষেক ও সিরিজের প্রথম টেস্টের টিকিট কেনা যাবে ভেন্যুর কাউন্টার থেকে। ২ নভেম্বর থেকে শুরু হয়ে ম্যাচের দিনগুলোতেও বিক্রি হবে টিকিট।

১১ নভেম্বর শুরু হতে যাওয়া মিরপুরের দ্বিতীয় টেস্টের টিকিট বিক্রি শুরু ১০ নভেম্বর থেকে, পাওয়া যাবে শহীদ সোহরাওয়ার্দী ইনডোর স্টেডিয়াম-সংলগ্ন কাউন্টারে। সব ভেন্যুতেই টিকিট থাকা সাপেক্ষে খেলার দিনও টিকিট বিক্রি হবে। সশরীরে কাউন্টারে না গিয়ে *২৬৮# এ ডায়াল করে ইউক্যাশের মাধ্যমেও আছে টিকিট কেনার ব্যবস্থা।

মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামের প্রথম ওয়ানডের টিকিটের দাম গ্র্যান্ড স্ট্যান্ড ১০০০ টাকা, ভিআইপি স্ট্যান্ড ৫০০ টাকা, ক্লাব হাউস ৩০০ টাকা, উত্তর ও দক্ষিণ গ্যালারি ১৫০ টাকা এবং পূর্ব গ্যালারি ১০০ টাকা। একই ভেন্যুতে অনুষ্ঠেয় সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের টিকিটের দাম যথাক্রমে ৫০০, ৩০০, ২০০, ৮০ ও ৫০ টাকা।

চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠেয় দ্বিতীয় ও তৃতীয় ওয়ানডের টিকিটের মূল্য গ্র্যান্ড স্ট্যান্ড ও রুফ টপ হসপিটালিটি ১০০০ টাকা, ইন্টারন্যাশনাল স্ট্যান্ড ৫০০ টাকা, ক্লাব হাউস ৩০০ টাকা, পশ্চিম গ্যালারি ১৫০ টাকা ও পূর্ব গ্যালারি ১০০ টাকা। সিলেটে অনুষ্ঠেয় সিরিজের প্রথম টেস্টের টিকিটের দাম গ্র্যান্ড স্ট্যান্ড ৫০০ টাকা, ক্লাব হাউস ২০০ টাকা, পূর্ব গ্যালারি ৮০ টাকা, পশ্চিম গ্যালারি ৫০ টাকা ও গ্রিন হিল এরিয়া ৫০ টাকা।

নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে নির্বাচনের তফসিল: ইসি

আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের তফসিল নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশন (ইসি) সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ।

বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে সাংবাদিকদের এ তথ্য জানান ইসি সচিব।

প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নূরুল হুদার বরাত দিয়ে তিনি বলেন, ‘ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের (ইইউ) প্রতিনিধির সঙ্গে বৈঠকে প্রধান নির্বাচন কমিশনার জানিয়েছেন, নভেম্বরের প্রথম সপ্তাহে সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হবে।’

সচিব হেলালুদ্দীন বলেন, আগামী নির্বাচনে সব দলের অংশগ্রহণের নিশ্চয়তা চায় ইউরোপীয় ইউনিয়ন। তারা বলেছে, সব দলের অংশগ্রহণ ছাড়া নির্বাচন গ্রহণযোগ্য হবে না। আমরা জানিয়েছি, নির্বাচনে সব রাজনৈতিক দল যাতে অংশ নিতে পারে সে পরিবেশ তৈরি করতে নির্বাচন কমিশন কাজ করছে। আইনের মধ্যে থেকে সব ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

তারা কোনো কিছু জানতে চেয়েছেন কিনা-সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে সচিব বলেন, ‘ইভিএম, পর্যবেক্ষক, জনবল, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী, প্রবাসীদের ভোট দেয়ার প্রক্রিয়া, ভোটার তালিকা সম্পর্কে জানতে চেয়েছেন।’

নির্বাচনে বিদেশী পর্যবেক্ষক নিয়ে হেলালুদ্দীন বলেন, আমরা তাদের বলেছি, পর্যবেক্ষকের বিষয়ে বিদ্যমান নীতিমালা মেনে যে কেউ আসতে পারে। আমরা তাদের স্বাগত জানাই।

আমরা তাদের নির্বাচনের সার্বিক নিরাপত্তার বিষয়ে জানিয়েছি যে, দেশের মোট ৪১ হাজার ১৯৯ টি ভোট কেন্দ্রের জন্য সার্বিক নিরাপত্তার ব্যবস্থা করা হবে। পর্যাপ্ত সংখ্যক আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা হবে।

এর আগে বেলা ১১টার দিকে ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের ৭ সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল আগারগাঁওয়ের নির্বাচন ভবনে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদার কার্যালয়ে বৈঠক করে।

বৈঠকে সাতটি দেশের রাষ্ট্রদূত ছাড়াও নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার, মো. রফিকুল ইসলাম, কবিতা খানম, ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদাত হোসেন চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।

কিংবদন্তি সংগীতশিল্পী আইয়ুব বাচ্চু আর নেই

ব্যান্ড সংগীতের কিংবদন্তি শিল্পী আইয়ুব বাচ্চু মারা গেছেন (ইন্নালিল্লাহি … রাজিউন)।

বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে মারা যান তিনি। তার বয়স হয়েছিল ৫৬ বছর।

তার স্বজনরা জানান, আজ সকালে ধানমন্ডির বাসায় হৃদরোগে আক্রান্ত হন আইয়ুব বাচ্চু। সকাল সাড়ে নয়টার দিকে তাকে রাজধানীর স্কয়ার হাসপাতালে নেয়া হয়।

সকাল ৯টা ৫৫ মিনিটে তাকে মৃত ঘোষণা করেন চিকিৎসক।

আইয়ুব বাচ্চুর মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন সংস্কৃতিমন্ত্রী আসাদুজ্জামান নূর। পাশাপাশি শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান তিনি।

আইয়ুব বাচ্চু ১৯৬২ সালের ১৬ আগস্ট তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের (বর্তমান বাংলাদেশ) চট্টগ্রাম জেলায় জন্মগ্রহণ করেন।

বাচ্চুর সংগীতজগতে যাত্রা শুরু হয় ১৯৭৮ সালে ‘ফিলিংস’ ব্যান্ডের মাধ্যমে। তার কণ্ঠের প্রথম গান- ‘হারানো বিকেলের গল্প’। গানটির কথা লিখেছিলেন শহীদ মাহমুদ জঙ্গী।

১৯৮০ থেকে ১৯৯০ সালে তিনি সোলস ব্যান্ডের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন। ১৯৮৬ সালে প্রকাশিত ‘রক্তগোলাপ’ আইয়ুব বাচ্চুর প্রথম প্রকাশিত একক অ্যালবাম। এই অ্যালবামটি তার জীবনে সফলতা বয়ে না আনলেও ১৯৮৮ সালে তার দ্বিতীয় একক অ্যালবাম ‘ময়না’ তার জীবনে সফলতার দ্বার উন্মোচন করে।

১৯৯১ সালে বাচ্চু এলআরবি ব্যান্ড গঠন করে। এই ব্যান্ড গঠনের পর প্রথম অ্যালবাম প্রকাশিত হয় ১৯৯২ সালে। এটি বাংলাদেশের প্রথম দ্বৈত অ্যালবাম। এই অ্যালবামের ‘শেষ চিঠি কেন এমন চিঠি’, ‘ঘুম ভাঙা শহরে’, ‘হকার’ গানগুলো জনপ্রিয়তা লাভ করে।

পরবর্তী সময়ে ১৯৯৩ ও ১৯৯৪ সালে তার দ্বিতীয় ও তৃতীয় ব্যান্ড অ্যালবাম ‘সুখ’ ও ‘তবুও’ বের হয়।

১৯৯৫ সালে তিনি বের করেন তৃতীয় একক অ্যালবাম ‘কষ্ট’। সর্বকালের সেরা একক অ্যালবামের একটি বলে অভিহিত করা হয় এটিকে।

একই বছর তার চতুর্থ ব্যান্ড অ্যালবাম ‘ঘুমন্ত শহরে’ প্রকাশিত হয়।

‘অনন্ত প্রেম তুমি দাও আমাকে’ তার বাংলা ছবির অন্যতম একটি জনপ্রিয় গান। এটি তার গাওয়া প্রথম চলচ্চিত্রের গান।

২০০৯ সালে তার একক অ্যালবাম বলিনি কখনও প্রকাশিত। ২০১১ সালে এলআরবি ব্যান্ড থেকে বের করেন ব্যান্ড অ্যালবাম যুদ্ধ।

ছয় বছর পর ২০১৫ সালে তার পরবর্তী একক অ্যালবাম জীবনের গল্প বাজারে আসে।

গিটারে তিনি সারা ভারতীয় উপমহাদেশে বিখ্যাত। জিমি হেন্ড্রিক্স ও জো স্যাট্রিয়ানীর বাজনায় তিনি দারুণভাবে অনুপ্রাণিত। ঢাকার মগবাজারে ‘এবি কিচেন’ নামে তার নিজস্ব একটি মিউজিক স্টুডিও রয়েছে।

আইয়ুব বাচ্চুর জনপ্রিয় গান ‘হাসতে দেখো গাইতে দেখো’। বাংলাদেশের ব্যান্ড সংগীতে যে কয়েকটি গান তুমুল জনপ্রিয়তা পেয়েছে, তার মধ্যে এই গানটি অন্যতম। লিখেছেন জনপ্রিয় গীতিকবি লতিফুল ইসলাম শিবলী।

এ ছাড়া ‘কষ্ট পেতে ভালোবাসি’ ‘সেই তুমি’, ‘সে তারা ভরা রাতে’, ‘সুখের পৃথিবী’, ‘হাসতে দেখো গাইতে দেখো’, ‘আমি বারো মাস তোমার আশাই আছি’, ‘মেয়ে’, ‘আম্মাজান’।

শহীদ শেখ রাসেলের জন্মদিন আজ

স্বাধীনতার মহান স্থপতি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র শহীদ শেখ রাসেলের জন্মদিন আজ। ১৯৬৪ সালের ১৮ অক্টোবর ধানমন্ডিস্থ বঙ্গবন্ধু ভবনে তিনি জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট মানবতার শত্রু ঘৃণ্য ঘাতকদের নির্মম বুলেটের হাত থেকে রক্ষা পাননি বঙ্গবন্ধুর এই শিশুপুত্র শেখ রাসেল। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সঙ্গে নরপিশাচরা নিষ্ঠুরভাবে তাকেও হত্যা করেছিল।

মৃত্যুকালে শেখ রাসেল ইউনিভার্সিটি ল্যাবরেটরি স্কুলের চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্র ছিলেন। বঙ্গবন্ধুর আত্মস্বীকৃত খুনিরা তাঁকে হত্যা করে বঙ্গবন্ধুর রক্তের উত্তরাধিকার নিশ্চিহ্ন করতে চেয়েছিল। ইতিহাস সাক্ষ্য দেয় তাদের অপচেষ্টা শতভাগ ব্যর্থতায় পর্যবসিত হয়েছে। শহীদ শেখ রাসেল আজ বাংলাদেশের শিশু-কিশোর, তরুণ, শুভবুদ্ধিবোধ সম্পন্ন মানুষদের কাছে ভালোবাসার নাম। অবহেলিত, পশ্চাত্পদ, অধিকার বঞ্চিত শিশুদের আলোকিত জীবন গড়ার প্রতীক হয়ে গ্রাম-গঞ্জ-শহর তথা বাংলাদেশের বিস্তীর্ণ জনপদ-লোকালয়ে শেখ রাসেল আজ এক মানবিক সত্ত্বায় পরিণত হয়েছেন। মানবিক চেতনা সম্পন্ন মানুষ শেখ রাসেলের বিয়োগ দুঃখ বেদনাকে হূদয়ে ধারণ করে বাংলার প্রতিটি শিশু-কিশোর তরুণের মুখে হাসি ফুটাতে আজ প্রতিশ্রতিবদ্ধ। দেশবাসীর আজ একটাই দাবি বঙ্গবন্ধু ও শিশু রাসেল হত্যাকারীদের যেসব ঘাতক এখনো বিদেশের মাটিতে পালিয়ে আছে তাদের দেশে এনে ফাঁসির রায় কার্যকর করতে হবে।

শহীদ শেখ রাসেলের জন্মদিন উপলক্ষে আওয়ামী লীগ আজ বুধবার সকাল ৮টায় বনানী কবরস্থানে চিরনিদ্রায় শায়িত ১৫ আগস্টে নিহত সব শহীদদের কবরে পুষ্পস্তবক অর্পণ, ফাতেহা পাঠ, মিলাদ ও দোয়া মাহফিলের আয়োজন করেছে। এছাড়াও দলের অন্যান্য সহযোগী, ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন এবং বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠন বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করেছে। ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ আওয়ামী লীগের উদ্যোগে সারাদিনব্যাপী কোরআনখানি এবং বাদ আছর দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে। শেখ রাসেল জাতীয় শিশু-কিশোর পরিষদের কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে সকাল ৭টায় কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে সংগঠনের পতাকা উত্তোলন, সকাল সাড়ে ৭টায় ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুস্পার্ঘ্য অর্পণ, বিকাল ৪টায় বনানীস্থ শেখ রাসেলের কবর জিয়ারত ও দোয়া মাহফিল।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এক বিবৃতিতে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের কনিষ্ঠ পুত্র শেখ রাসেলের জন্মদিন উপলক্ষে আয়োজিত বিভিন্ন কর্মসূচি যথাযোগ্যভাবে পালন করার জন্য দলীয় নেতাকর্মী, সমর্থক, শুভানুধ্যায়ী ও সর্বস্তরের জনগণের প্রতি অনুরোধ জানিয়েছেন। একই সাথে তিনি দলের সকল শাখা সংগঠনসমূহকেও অনুরূপ কর্মসূচি পালনের আহ্বান জানিয়েছেন।

আশাশুনির বিভিন্ন পূজা মন্ডপ পরিদর্শনে প্রফেসর ড. আবু ইউসুফ

জি এম মুজিবুর রহমান ::
আশাশুনি উপজেলার বিভিন্ন পূজা মন্ডপ পরিদর্শন করেছেন নর্র্দান ইউনিভার্সিটির ভিসি সাতক্ষীরা-০৩ আসনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন প্রত্যাশী প্রফেসর ড. আবু ইউসুফ মোঃ আব্দুল্লাহ। বুধবার সকাল থেকে সন্ধ্যাবধি এ তিনি কর্মসূচিতে অংশ নেন।

সাতক্ষীরা থেকে সফর সঙঙ্গেিদর নিয়ে বেলা ১১১ টার দিকে তিনি আশাশুনিতে গমন করেন। এরপর কুল্যা ইউনিয়নের গুনাকরকাটি, মহিষাডাঙ্গা, কাদাকাটি ইউনিয়নের উত্তর কাদাকাটি, দঃ কাদাকাটি, পূর্ব কাদাকাটি, বুধহাটা ইউনিযনের মহেশ্বরকাটি পূজা মন্ডপ, আশাশুনি সদর ইউনিয়ন পূজা মন্ডলসহ কয়েকটি পূজা মন্ডপ এবং শ্রীউলা ইউনিয়নের কয়েকটি পূূজা মন্ডপ পরিদর্শন করেন। পরিদর্শনকালে তিনি দর্শণার্থী, ভক্ত ও উপস্থিত ব্যক্তিবর্গের উদ্দেশ্যে বলেন, ধর্ম যার যার উৎসব সবার। বাংলাদেশ সাম্প্র্রদায়িক সম্প্রীতির দেশ।

সকল ধর্মকে সমান চোখে দেখে বঙ্গবন্ধুর আদর্শ নিয়ে বাংলাদেশের জন্ম। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ আজ এগিয়ে যাচ্ছে। সেই ধারা অব্যাহত রাখতে হলে আগামী একাদশ সংসদ নির্বাচনে নৌকায় ভোট দিতে হবে। তিনি বলেন, মা দর্র্গা শান্তি ও সম্প্রীতির আদর্র্শ। সকল প্রকার কলুষতা, ষড়যন্ত্র ও অন্যায়কে জলাঞ্জলী দিতে আজকে আমাদেরকে অঙ্গীকারাদ্ধ হতে হবে।

এসময় তার সফরসঙ্গীদের মধ্যে দেবহাটার সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান এড. গোলাম মোস্তফা, দেবহাটা আ’লীগের সহ-সভাপতি নজরুল ইসলাম, জেলা কৃষকলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক রাশেদ সরোয়ার শেলী, সাংগঠনিক সম্পাদক আশরাফ আলী, ব্যাংকার সাধন বিশ্বাস, আ’লীগ নেতা মজনুর রহমান, ওহিদুল ইসলাম, আব্দুল আজিজ, রেজাউল, কেন্টু উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া বিভিন্ন পূজা মন্ডপে আলোচন রাখেন ও উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সহ-সভাপতি অধ্যাপক সুবোধ চক্রবর্তী, সেক্রেটারী রনজিত কুমার বৈদ্য, সাংগঠনিক সম্পাদক প্রভাষক হিরুলাল সরকার, পূজা উদযাপন পরিষদ নেতা প্রভাষক রতন কুমার অধিকারী, মিজানুর রহমান মন্টু, রমজান আলী প্রমুখ।

পরিদর্শণকালে প্রফেসর ড. আবু ইউসুফ মোঃ আব্দুল্লাহ সদর পূজা মন্ডপে ১০ হাজার টাকা ও অন্যান পূজা মন্ডপে ৩ হাজার থেকে ৫৫ হাাজার টাকা করে অনুদান প্রদান করেন।

দেবহাটায় শ্রমিকলীগ নের্তৃবৃন্দের পূজা মন্ডপ পরিদর্শন ও আর্থিক সহায়তা প্রদান

দেবহাটা প্রতিনিধি: দেবহাটায় শ্রমিকলীগ নের্তৃবৃন্দ বিভিন্ন পূজা মন্ডপ পরিদর্শন ও আর্থিক সহায়তা প্রদান করেছেন।

বুধবার সন্ধায় উপজেলা দেবহাটা বাজার সার্বজনীন দুর্গা পূজা মন্ডপ, দেবহাটা ফুটবল মাঠ সার্বজনীন দুর্গা পূজা মন্ডপ, পাঁকড়াতলা সার্বজনীন দুর্গা পূজা মন্ডপ, টাউনশ্রীপুর বাজার সার্বজনীন দুর্গা পূজা মন্ডপ ও টাউনশ্রীপুর পালপাড়া সার্বজনীন দুর্গা পূজা মন্ডপ পরিদর্শন করেন।

পরিদর্শন কালে উপস্থিত ছিলেন, উপজেলা শ্রমিকলীগের সহ-সভাপতি মনিরুল ইসলাম, কবির হোসেন, সাধারণ সম্পাদক আমিরুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক ও দেবহাটা সদর ইউনিয়ন পরিষদের ইউপি সদস্য আরমান হোসেন, সহ- সাংগঠনিক সম্পাদক জাকির হোসেন, দপ্তর সম্পাদক আজিজুল হক আরিফ, সদর ইউনিয়ন শ্রমিকলীগের সভাপতি রাজিব হোসেন জজ, সাধারন সম্পাদক শরিফুল ইসলাম, সখিপুর ইউনিয়ন শ্রমিক লীগের সভাপতি সিরাজুল ইসলাম, ইউপি মোক্তার আলী, ইউপি সদস্যা শাহনাজ খাতুন, সামাদ গাজী, সিরাজুল ইসলাম।

এসময় সকল পূজা মন্ডপের সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকের হাতে নগদ অর্থ প্রদান করা হয়।