নির্বাচন ঠেকানোর শক্তি কারও নেই: প্রধানমন্ত্রী

259

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, একাদশ জাতীয় নির্বাচন যথাসময়েই হবে, ইনশাল্লাহ। নির্বাচন ঠেকানোর মতো শক্তি কারও নেই। ষড়যন্ত্র আছে, ষড়যন্ত্র থাকবে, জনগণ সব ষড়যন্ত্র মোকাবেলা করবে।

আজ রোববার বিকেল ৪টায় গণভবনে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন। নেপালে বিমসটেক শীর্ষ সম্মেলনে অংশগ্রহণ বিষয়ে জানাতে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ষড়যন্ত্র ছিল, আছে থাকবে। ষড়যন্ত্রকারীরা আমার বাবাকে খুন করেছে। আমিও খুন হতে পারি। প্লেনের নাট বল্টু খুলে গিয়েছিল। তবু বেঁচে গেছি। আল্লাহ বাঁচিয়ে রেখেছেন। তাই কারও হুমকিতে ঘরে বসে থাকলে চলবে না, কাজ করতে হবে। যতক্ষণ সাহস আছে ততক্ষণ মানুষের জন্য কাজ করে যাবো।

আওয়ামী জোটবদ্ধ নির্বাচন করবে এমন ইঙ্গিত দিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, জোট অবশ্যই থাকবে। শরীক দল নিয়ে আমরা জোটবদ্ধ নির্বাচন করব।

নির্বাচনকালীন সরকার বিষয়ে এক প্রশ্নের উত্তরে প্রধানমন্ত্রী বলেন, নির্বাচিত সরকার ক্ষমতা থেকে সরে গেলে যারা একবার ক্ষমতায় বসে তারা আর ছাড়তে চায় না। মার্শাল ল, সামরিক শাসন ও কেয়ারটেকার সরকারের এমন অনেক উদাহরণ রয়েছে।

তিনি বলেন, উচ্চ আদালত এ বিষয়ে একটি রায় দিয়েছে। যদি সরকার মনে করে, এ সুযোগ পরপর দু`বার নিতে পারে। তবে সংসদ সে সুযোগ নেয়নি। একটা সরকার থেকে আরেকটা সরকারে যাওয়ার যে সময় ওই সময়ে যেন কোনো ফাঁক না থাকে সেজন্য এটা করা। এ বিষয়ে আমি ভারত ও নেপাল সরকারের সঙ্গে আলোচনা করেছি। বিশ্বের প্রত্যেকটা দেশে এ ব্যবস্থা আছে।

নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডুতে অনুষ্ঠিত ৪র্থ ‘বে অব বেঙ্গল ইনেসিয়েটিভ ফর মাল্টি সেক্টরাল টেকনিক্যাল এন্ড ইকোনমিক কো-অপারেশন’ (বিমসটেক) সম্মেলনে যোগ দিতে গত বৃহস্পতিবার নেপাল যান প্রধানমন্ত্রী।

সম্মেলনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন তিনি। এ সম্মেলনে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গেও বৈঠক করেন প্রধানমন্ত্রী।বিমসটেক সম্মেলন শেষে শুক্রবার ঢাকায় ফেরেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শেয়ার করুন ..