কালিগঞ্জ উপজলায় নবযাত্রা’র আয়োজনে আন্তর্জাতিক সিডও দিবস -২০১৮ উদযাপন

315

আতিকুর রহমান, কালিগঞ্জ (সাতক্ষীরা) প্রতিনিধি ঃ “আমেরিকান সরকারের আন্তজার্তিক উন্নয়ন সংস্থা (ইউএসএআইডি) এর ফুড ফর পিস (টাইটেল-২) খাদ্য সহায়তা কার্যক্রমের অর্থায়নে ‘নবযাত্রা’ একটি পাঁচ বছর মেয়াদী প্রকল্প; যা ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বরে শুরু হয়েছে এবং ২০২০ সালের সেপ্টেম্বরে শেষ
হবে। ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ এর নেতৃত্বে নবযাত্রা প্রকল্প অংশীদারিত্বের ভিত্তিতে ওয়ার্ল্ড ফুড প্রোগ্রাম, উইনরক ইন্টারন্যাশনাল এবং গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় বাস্তবায়িত হচ্ছে। প্রকল্পটি বাংলাদেশের দক্ষিণ পশ্চিমউপকূলীয় খুলনা জেলার দাকোপ ও কয়রা এবং সাতক্ষীরা জেলার কালিগঞ্জ ও শ্যামনগর উপজেলার ৮,৫৬,১১৬ জন উপকারভোগীর জন্য বাস্তবায়িত হচ্ছে।
স্থানীয় বেসরকারি সংস্থা (এনজিও), সুশীলন নবযাত্রা কর্মসূচীর সুশাসন ও সামাজিক দায়বদ্ধতা, জেন্ডার, এবং গ্র্যাজুয়েশন কার্যক্রমের সঞ্চয়ী দল সম্পর্কিত কার্যাবলী বাস্তবায়ন করছে। ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশ সুশীলন’র সাথে সাতক্ষীরা জেলার কালিগঞ্জ ও শ্যামনগর উপজেলায় সরকারি ও বেসরকারি সংস্থাসমুহের সাথে এলাকার উন্নয়নে কাজ করে আসছে। স্থানীয় সরকারি-বেসরকারি সংস্থার সাথে নবযাত্রা প্রকল্পের কাজকে সমন্বয় করার লক্ষ্যে এবং
বাল্যবিবাহ ও কৈশরকালীন গর্ভধারণ প্রতিরোধ, নারী ও শিশু নির্যাতন প্রতিরোধ এবং প্রান্তিক যুব জনগোষ্ঠির বাস্তবভিত্তিক প্রয়োজন, সুযোগ ও চ্যালেঞ্জ বিষয়ে একসাথে কাজ করার জন্য জেলা প্রশাসন, মহিলা ও শিশু বিষয়ক অধিদপ্তর, যুব উন্নয়ন অধিদপ্তর, সমাজসেবা অধিদপ্তর এবং জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে সরকারি বিভিন্ন দপ্তরের ও বেসরকারি সংস্থাদের সাথে সমন্বয়ের মাধ্যমে একসাথে কাজ করে যাচ্ছে। তারই অংশ হিসেবে কালিগঞ্জ উপজেলায় ০৩ আগস্ট, ২০১৮ ইং তারিখে নবযাত্রা’র আয়োজনে নলতা ইউনিয়নের খানজিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে আন্তর্জাতিক সিডও দিবস উদযাপন করা হয়।
উক্ত অনুষ্ঠানে নলতা ইউনিয়ন পরিষদের সদস্যবৃন্দ, মাধ্যমিক এবং সরকারী প্রাথমিক স্কুলের প্রধান শিক্ষকসহ অন্যান্য শিক্ষকবৃন্দ, এসএমসির সদস্যবৃন্দ, কলেজের প্রভাষক, সাংবাদিক, ব্যবসায়ী, বাল্য বিয়ে এবং নারীর অধিকার নিয়ে কাজ করে এমন সমাজসেবক, জাতীয় এবং আন্তর্জাতিক সংস্থার প্রতিনিধিবৃন্দ, নবযাত্রার প্রতিনিধিবৃন্দ, পারিবারিক বিরোধ নিরোসন নারী ও শিশু কল্যান কমিটির সদস্যবৃন্দ, ইনফ্লুয়েন্সিয়াল গ্রুপের সদস্যবৃন্দ, ভিডিসি সদস্যবৃন্দসহ। বিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের অংশগ্রহণে র‌্যালী, আলোচনা সভা এবং শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। উক্ত অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন মোহাঃ জমায়েত আলী, প্রধান শিক্ষক, খানজিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় এবং প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মোহাঃ এবাদুল হক, প্যানেল চেয়ারম্যান-নলতা ইউনিয়ন পরিষদ। মোহাঃ এবাদুল হক, প্যানেল চেয়ারম্যান-নলতা ইউনিয়ন পরিষদ’র নেতেৃত্বে ৩০০ লোকের এক বিশাল র‌্যালী নলতার ইউনিয়নের খানজিয়ার প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে খানজিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে এসে শেষ হয়। র‌্যালী শেষে খানজিয়া বিদ্যালয় মাঠ প্রাঙ্গনে এক
আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। উক্ত আলোচনা সভায় আন্তর্জাতিক সিডও দিবসের প্রেক্ষাপট এবং গুরুত্ব, নারীর প্রতি বৈষম্য দূরীকরণে নবযাত্রার উদ্যোগসমূহ তুলে ধরেন লাইলী আরজুমান খানম (লায়লা), জেন্ডার অফিসার-কালিগঞ্জ, নবযাত্রা প্রকল্প। উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত অতিথিবৃন্দ ইভ টিজিং, বাল্য বিবাহ, বিদ্যালয় হতে ঝরে পড়া মেয়ে শিশুর হার কমানো, নারীর প্রতি সহিংসতা বন্ধ, শিক্ষা, বিভিন্ন তথ্য জানা, স্বাস্থ্য ও পুষ্টি নিশ্চিতকরণসহ নারীর অধিকার রক্ষায় করণীয়সমুহ এবং বাস্তবায়নের উপায় নিয়ে আলোচনা করেন।
উক্ত অনুষ্ঠানে মোহাঃ এবাদুল হক, প্যানেল চেয়ারম্যান-নলতা ইউনিয়ন পরিষদ বলেন,” কোন মেয়ে শিশু ইভ টিজিং এবং কোন নারী নির্যাতনের শিকার হলে সাথে সাথে নলতা ইউনিয়ন পরিষদকে জানাতে হবে। আমরা অবশ্যই এব্যপারে প্রশাসনকে সাথে নিয়ে ব্যবস্থা নিব। কোন অভিভাবক বাল্য বিয়ে দিতে উদ্যত হলে আমাদেরকে অবশ্যই গোপনে জানাবেন। বাল্য বিয়ে নামক দৈত্য নারীর বিভিন্ন অধিকারকে খর্ব করে এবং অবশেষে উক্ত পরিবার দারিদ্রের দুষ্ট চক্রের ভেতর পড়ে যায়। শিক্ষা, স্বাস্থ্য ও পুষ্টি, নিরাপত্তা রক্ষায় আমাদেরকে একযোগে কাজ করতে হবে।” জনাব মোহাঃ জমায়েত আলী, প্রধান শিক্ষক, খানজিয়া মাধ্যমিক বিদ্যালয় তার সভাপতির বক্তেব্যে বলেন,“নারীর অধিকার রক্ষার এবং নারীর প্রতি সহিংসতা বন্ধে সকলে আমরা
একযোগে কাজ করবো। ছাত্রীদের পড়ালেখার উপযোগী পরিবেশ নিশ্চিত করতে আমরা অবশ্যই ব্যবস্থা নিব যাতে তারা আত্মবিশ্বাস নিয়ে সুন্দর ভবিষ্যত গড়ে তুলতে পারে।” আলোচনা শেষে অংশগ্রহণকারীদেরকে নারীর প্রতি সহিংসতা বিলোপ এবং নারীর অধিকার প্রতিষ্ঠার জন্য নি¤েœাক্ত শপথ বাক্য পাঠ করান অত্র বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জনাব মোহাঃ জমায়েত আলী। “নারীদেরকে সম্মান করবো, কোন নারীকে ইভটিজিং করবো না, নারীদেরকে অত্যাচার
করবো না, মেয়ে শিশুদের লেখাপড়ার জন্য সুন্দর পরিবেশ তৈরিতে সহায়ত করবো, বাল্য বিবাহ করবো না এবং বাল্য বিবাহ করতে সহযোগিতা করবো না”

শেয়ার করুন ..