মদ্যপানে ভারতে পুরুষদের টক্কর দিচ্ছেন মহিলারা

198

সাতক্ষীরা নিউজ ডেস্ক: মদ্যপানের নিরিখে পুরুষদের সঙ্গে সমানে পাল্লা দিচ্ছে আধুনিক মহিলারা। ভারতের মতো রক্ষণশীল দেশেও এর ব্যতিক্রম নেই। সপ্তাহান্তে বা আচার-অনুষ্ঠানে মহিলাদের সুরাপানের প্রবণতা ক্রমবর্ধমান। সম্প্রতি প্রকাশিত একটি রিপোর্ট বলছে, ভারতে একজন পুরুষ গড়ে ৪.২ লিটার মদ্যপান করেন। সেখানে মহিলারাও গড়ে ১.৫ লিটার মদ্যপান করছেন এখন।
এ প্রসঙ্গে, ভারতের একমাত্র মাস্টার অব ওয়াইন (স্বীকৃতিপ্রাপ্ত ককটেল প্রস্তুতকারী) সোনাল হল্যান্ড বলছেন, “ছেলেদের তুলনায় মেয়েরা এখন মদ্যপানে খরচ বাড়াচ্ছে। মদ্যপান মেয়েরা এখন দেখছে, আধুনিকতা, ক্ষমতায়ন এবং উন্নতির প্রতীক হিসেবে। আমাদের সমাজে মেয়েদের মদ্যপান আর অচ্যুত নয়। মেয়েরা এখন ছেলেদের মতোই সমস্ত অনুষ্ঠনে মদ কিনছে। ব্যবসায়ীরাও এখন বাজার ধরার জন্য মহিলা গ্রাহকদেরই টার্গেট করছে। এই মুহূর্ত মদ শিল্পের অন্যতম লক্ষ্যই হয়ে উঠেছে মেয়েদের জন্য অ্যালকোহল প্রস্তুত করা। সমাজে লিঙ্গবৈষম্য যত কমছে ততই মদ্যপানে এগিয়ে আসার সাহস পাচ্ছে মেয়েরা।”
পরিসংখ্যান বলছে, গত এক দশকে ভারতে মদ্যপায়ীদের সংখ্যা এবং মদ্যপানের পরিমাণ উদ্বেগজনকভাবে বেড়েছে। ২০০৫ সালের আগে ভারতে মাথা পিছু মদ্যপানের পরিমাণ ছিল ২.৪ লিটার। ২০০৫ থেকে ২০১০ সালের মধ্যে এই পাঁচ বছরে বিপুল হারে বাড়ে ভারতীয়দের মদ্যপানের প্রবণতা। ২০১০ সালে ভারতীয়দের গড় মদ্যপানের পরিমাণ ২.৪ লিটার থেকে বেড়ে হয় ৪.৩ লিটার। এই মদ্যপানের পরিমাণ আরও বাড়ে পরবর্তী ৬ বছরে। ২০১৬ সালে মদ্যপানের পরিমাণ বেড়ে দাঁড়ায় ৫.৭ লিটার। এই ৫.৭ লিটারের মধ্যে গড় পুরুষ মদ্যপান করেন ৪.২ লিটার আর গড় মহিলা করেন ১.৫ লিটার। রাষ্ট্রসংঘের স্বাস্থ্য বিভাগের রিপোর্টে ভারতের মদ্যপানের ক্রমবর্ধমান প্রবণতাকে অত্যন্ত উদ্বেগজনক বলে বর্ণনা করা হয়েছে। বলা হয়েছে, আগামী কয়েক বছরে শুধু ভারতেই মাথা পিছু মদ্যপানের পরিমাণ ২.২ লিটার পর্যন্ত বাড়তে পারে।

শেয়ার করুন ..