মাগুর মাছের চাষ করে সাবলম্বী কলারোয়ার জিয়ারুল

290

নিজস্ব প্রতিনিধি: মাগুর মাছের চাষ করে সাবলম্বী কলারোয়ার ব্রজবাকসা গ্রামের জিয়ারুল ইসলাম। জিয়ারুল সাতক্ষীরা সদর উপজেলার পাথরঘাটা মাঠে গত ১০ বছর ধরে মাগুর মাছের চাষ করছেন।

কলারোয়া উপজেলার ব্রজবাকসা গ্রামের মোকসেদ আলীর পুত্র জিয়ারুল গত২০ বছর ধরে মাগুর মাছের চাষ করে আসছেন। তিনি এর আগে তার নিজ এলাকায় চারা মাছ চাষ করতেন। তাতে খুব লাভবান হতে না পেরে যশোরের একজন হ্যচারী মালিকের পরামশে আফ্রিকান মাগুর মাছের চাষ শুরু করেন।

জিয়ারুল জানান গত ১০ বছর আগে পাথরঘাটা মাঠে ১ বিঘা জমি লীজ নিয়ে মাগুর মাছের চাষ শুরু করি।যশোরের একটি হ্যাচারী থেকে ১/২ দিন বয়সের চারা মাছ এনে পুকুরে ছেড়ে দেয়। মাছের বয়স ১ থেকে দেড় মাস বয়স হলে ঢাকার মাছ ব্যবসায়ীদের কাছে বিক্রি করি। সমস্ত খরচ খরচা বাদ এ থেকে বছরে তার ৪ থেকে ৫ লক্ষ টাকা অায় হয়।

মাছের দেখাশুনা করেন মফিজুল।তিনি জানান এ মাছ চাষে তেমন কোন ঝামেলা হয়না।কোন প্রকার রোগ বালাই হয়না বললেই চলে। প্রতিদিন দু বার ভাসমান ফিড দিলেই আর কিছু লাগে না।তবে বক বা মাছারাঙ্গা পাখির আক্রমন থেকে মাছ বাচানোর জন্য পুকুরের উপরে জাল টাগ্ঙিয়ে দিতে হয়।

জিয়ারুলের মাগুর মাছ চাষে সাফল্য দেখে অনেকে এ মাছ করার জন্য এগিয়ে আসছেন।

জিয়ারুল আরো জানান এ মাছ চাষে তার কখনো লোকসানের মুখ দেখতে হয়নি। সরকারি ব্যবস্থাপনায় যদি উন্নত প্রশিক্ষন এবং আথিক সহযোগিতা দিলে ভবিষ্যতে আরো ব্যপকভাবে মাছ করবেন বলে জানান।

শেয়ার করুন ..