তাবলীগ জামাতের দুপক্ষের সংঘর্ষ, নিহত ১

149

তাবলীগ জামাতের সাদপন্থি ও যোবায়েরপন্থিদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষের ঘটনায় এক মুসল্লি নিহত হয়েছেন। নিহতের নাম ইসমাইল মন্ডল (৭০)। তার বাড়ি মুন্সীগঞ্জের মিলকিপাড়া গ্রামে।

শনিবার (১ নভেম্বর) বিকাল ৩টার দিকে ঘটনাস্থল থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি মারা যান। এ দিন সকালে টঙ্গীর বিশ্ব ইজতেমা ময়দানে মাওলানা সাদ আহমাদ কান্ধলভী ও মাওলানা জোবায়ের আহমেদ সমর্থকদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ হয়। দুই পক্ষের সংঘর্ষে অন্তত তিন শতাধিক মুসল্লি আহত হয়েছেন বলে জানা গেছে।

সংঘর্ষে আহতদের মধ্যে ২৩ জনকে ঢামেকে ভর্তি করা হয়েছে। বাকিরা টঙ্গী সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

সরেজমিনে ঘুরে আমাদের প্রতিনিধি জানিয়েছেন, সংঘর্ষের পর আহত ইসমাইল মন্ডলকে প্রথমে টঙ্গী সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি হলে সেখান থেকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি মারা যান।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, ৫ দিনের জোড় ইজতেমা অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

গত শুক্রবার (৩০ নভেম্বর) থেকে মাওলানা সাদ আহমাদ কান্ধলভী পাঁচ দিনব্যাপী জোড় ইজতেমার ঘোষণা দিলে মাওলানা জোবায়েরপন্থিরা এর বিরোধিতা করেন এবং জোড় ইজতেমা প্রতিহত করার ঘোষণা দেন। এর আগেই মাওলানা জোবায়ের আহমেদের সমর্থকরা ইজতেমা ময়দানে প্রতিহত করতে অবস্থান নেন। সকালে সাদপন্থিরা ইজতেমা মাঠে গেলে ময়দানের প্রতিটি গেটে তালা লাগানো দেখতে পেয়ে তারা ক্ষিপ্ত হয়ে ওঠেন।

একপর্যায়ে মাওলানা সাদপন্থিরা ইজতেমা মাঠে ঢোকার চেষ্টা করলে উভয়পক্ষের সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষ বাধে।

এর আগে সকাল ৯টা ৪৫ মিনিটের দিকে রাজধানীর উত্তরা ১০ নম্বর সেক্টর বিশ্বনবী (স.) দারুল উলুম মাদ্রাসার সামনে তাবলীগ জামাতের সাদ ও জোবায়েরপন্থিদের মধ্যে সংঘর্ষে অন্তত ২০ জন আহত হন।

এছাড়া শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর গোলচত্বরে তাবলীগ জামাতের দুই পক্ষের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।

শেয়ার করুন ..