খালেদাকে একমাত্র রাষ্ট্রপতিই ক্ষমা করতে পারেন : কাদের

269

আবেদন করলে খালেদা জিয়ার দণ্ড একমাত্র রাষ্ট্রপতিই ক্ষমা করতে পারেন বলে মন্তব্য করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেন, সরকার আইন লঙ্ঘন করেতো খালেদা জিয়াকে নির্বাচনে অংশ নেওয়ার সুযোগ করে দিতে পারে না। তিনি যদি রাষ্ট্রপতির কাছে ক্ষমা চান, রাষ্ট্রপতি যদি ক্ষমা করেন, তাহলেই তিনি সুযোগ পেতে পারেন।

আজ রোববার দুপুরে ফেনী পৌর আওয়ামী লীগের অফিসে দলের জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ও নৌকার মনোনীত সংসদ সদস্য প্রার্থী নিজাম উদ্দিন হাজারীর প্রধান নির্বাচনী কার্যালয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফিংকালে তিনি এ কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, তাকে (খালেদা জিয়া) সরকার সাজা দেয়নি। এতিমের টাকা আত্মসাত করার অপরাধে আদালত তাকে সাজা দিয়েছে। ১০ বছর তিনি এ মামলা নিয়ে অনেক কানামাছি খেলেছেন। অবশেষে আদালত তাকে সাজা দিয়েছে।

নির্বাচনকে ঘিরে বিএনপি ও দলটির নেতৃত্বাধীন জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে সংকট দেখা দিয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, দেশে নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ বিরাজ করছে। বিএনপি ও তাদের নেতৃত্বাধীন ঐক্যফ্রন্টই নিজেদের ঘরে এলোমেলো অবস্থায় রয়েছে।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, দেশে নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ বিরাজ করছে। এ সুষ্ঠু পরিবেশ বিঘ্নিত হবে না, যদি বিএনপি বিঘ্নিত না করে। বিএনপি যদি তাদের অভ্যন্তরীণ কোন্দলের কারণে সরে না দাঁড়ায়, তবে নির্বাচন নিয়ে কোনো ধরনের সংকট নেই। কিন্তু বিএনপি এবং তাদের নেতৃত্বাধীন ঐক্যফ্রন্ট নিজেদের ঘরেই এলোমেলো অবস্থায় রয়েছে। দলের মনোনয়নবঞ্চিতরা গুলশান ও পল্টন অফিসে বারবার হামলা করছে। এই অবস্থায় তারা যদি পরিবেশ নেই বলে সরে দাঁড়ায়, তাহলে আমাদের কী করার আছে?

সংসদ সদস্য পদে থেকে নির্বাচনে অংশ নিয়ে আবার সংসদ সদস্য প্রার্থী হওয়ার সাংবিধানিক বৈধতার ব্যাপারে এক প্রশ্নের ব্যাপারে কাদের বলেন, আমিতো প্রাক্তন সুযোগ-সুবিধা নিচ্ছি না। নির্বাচন নিয়ে আচরণবিধির লঙ্ঘন করছি না। সরকারের প্রত্যেক মন্ত্রী-এমপি অক্ষরে অক্ষরে আচরণবিধি মেনে চলছে।

নির্বাচনে আওয়ামী লীগের মনোনয়নবঞ্চিতদের ব্যাপারে সাধারণ সম্পাদক বলেন, ক্ষমতায় ফিরলে আওয়ামী লীগ দলের এবং জোটের শরিকদের মনোনয়নবঞ্চিতদের যথাযথ সম্মান করবে।

শেয়ার করুন ..