লেবু চা শরীর ও মন চাঙ্গা রাখে

261

আমাদের অতি পরিচিত ফল লেবু। প্রায় পরিবারের খাবার টেবিলে শোভা পায় এ ফলটি। অন্যান্য ফলের ভিড়ে লেবু ভীষণ কোণঠাসা। এ ফলটির অসাধারণ কিছু পুষ্টিগুণ টেক্কা দিতে পারে যে কোনো ফলকে। লেবু দিয়ে তৈরি করা যেতে পারে স্বাস্থ্যকর ও মজাদার চা। লেবু চায়ের রয়েছে অনেক উপকারিতা।

ফুড প্লানিং অ্যান্ড মনিটরিং ইউনিটের সহযোগী গবেষণা পরিচালক মোস্তফা ফারুক আল বান্না বলেন, লেবু চা শরীর ও মন সুস্থ রাখতে সাহায্য করে। শরীরকে সতেজ সজীব এবং চাঙা রাখতে লেবু চা পানের কয়েকটি নিয়ম :

১। প্রতিদিন সকাল-বিকাল লেবু চা খেতে হবে।
২। তাজা লেবু দিয়ে চা তৈরি করতে হবে।
৩। চা হালকা লিকারের হতে হবে।
৪। চা পানের আগে পানি পান করে নিতে হবে ।
৫। খালি পেটে লেবু চা পান করা যাবে না।

উচ্চরক্তচাপ কমায় লেবু চা : লেবু সাইট্রাস পরিবারভুক্ত। লেবুতে আছে উচ্চমাত্রায় ভিটামিন সি এর পটাশিয়াম। আছে আরও কিছু প্রয়োজনীয় উপাদান। তবে ভিটামিন সি আর পটাশিয়াম মিলে শরীরের উচ্চরক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে কাজ করে। উপরন্তু লেবুর পটাশিয়াম হৎপিণ্ডের কর্মক্ষমতা বাড়ায়।

মানসিক চাপ কমাতে লেবু চা : লেবুর রসের ভিটামিন সি দূর করে মানসিক চাপ ও দুশ্চিন্তা। মানসিক বিষণ্নতায় শরীরবৃত্তীয় কারণেই ভিটামিন সি এর ঘাটতি দেখা দেয় শরীরে। লেবু চা পানে সেটি পূরণ হয় নিমেষেই। ফলে চাঙা হয় দেহ ও মন।

সুস্থ দাঁতের জন্য লেবু চা : দাঁতের ব্যথা উপশমে সাহায্য করে। মাড়ি থেকে রক্ত পড়া বন্ধ করতে লেবু চা খুব কার্যকর। মুখের গন্ধ রোধেও লেবু চা চমৎকার ফল দেয়। আর দাঁতে প্লাগ জমার কারণে যে অনাকাক্সিক্ষত দাগ পড়ে, তা সরাতে লেবু চা সাহায্য করে।

ত্বক সুন্দর করতে লেবু চা : ত্বকের ক্ষত পূরণে লেবু চা কার্যকর। লেবু চা পান করলে ত্বকে কোলাদেজনের মাত্রা বেড়ে যায়। ফলে ত্বক আরও উজ্জ্বল হয়। ত্বকের পোড়া ভাব যেমন দূর করতে পারে লেবু, তেমনি চোখের চারপাশের কালো দাগও মিলিয়ে দিতে পারে।

গলায় সংক্রমণ রোধে লেবু চা : লেবুর রসে আছে ব্যাকটেরিয়া প্রতিরোধী এক অনন্য বৈশিষ্ট। যার ফলে গলাব্যথা, মুখের ঘা আর টনসিলের সংক্রমণ রোধে সাহায্য করে লেবু চা।

কোলেস্টেরলের মাত্রা কমায় লেবু চা : রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা কমাতে ব্যাপক ভূমিকা রাখে লেবু চা। এটি শরীরের উপকারী কোলেস্টেরলের মাত্রা যেমন বাড়িয়ে দেয়, তেমনি ক্ষতিকর কোলেস্টেরল রাখে নিয়ন্ত্রণে।

শেয়ার করুন ..